২:৩৪ এএম, ১০ আগস্ট ২০২২, বুধবার | | ১২ মুহররম ১৪৪৪




সুনামগঞ্জে সুপারী পাড়তে গিয়ে প্রাণ গেল এক শিশুর

৩০ নভেম্বর -০০০১, ১২:০০ এএম | মোহাম্মদ হেলাল


 

হাবিব সরোয়ার আজাদ, সুনামগঞ্জ : সুনামগঞ্জের ছাতকে  মাত্র ১০ টাকার প্রলোভন দেখিয়ে এক শিশুকে গাছ থেকে সুপারী পাড়ার জন্য গাছে তুলে দিলে সেই শিশুটি গাছ থেকে পড়ে গিয়ে  অকালে মৃত্যুবরণ করেছে।  নিহতের নাম আলমাছ আলী (১০)।  আলমাছ আলী সিংচাপইড় ইউনিয়নের সিংচাপইড় গ্রামের দিনমজুর নুরুল ইসলামের শিশু পুত্র। 

নিহত শিশুর পারিবারীক সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার সিংচাপইড় ইউনিয়নের মহদী গ্রামের ধনু নাথের ছেলে নিকলেশ নাথের গাছ থেকে পরিবারের লোকজন মাত্র ১০ টাকার প্রলোভন দেখিয়ে  সোমবার সুপারী পাড়তে আলমাছকে গাছে তুলে দেন।  এক পর্যায়ে সুপারী পাড়তে গিয়ে গাছ থেকে মাটিতে পড়ে গেলে গুরুতর আহত  হয় আলমাছ। ’ আহত অবস্থায় স্থানীয় কৈতক হাসপাতালে নেয়ার পর অবস্থার উন্নতি না হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করলে মঙ্গলবার  রাতে  চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।  শিশুটির জানাজা শেষে বুধবার তাকে গ্রামের পঞ্চায়েতি কবরস্থানে দাফন করা হয়। ’

উপজেলার সিংচাপইড় গ্রামের নিহত শিশু আলমাছের মামা ও প্রতিবেশী বুধবার রাতে যুগান্তরকে বলেন,হত দরিদ্র দিনমজুড় নুরুল ইসলাম ও তার স্ত্রী একমাত্র শিশুপুত্রকে হারিয়ে হতবিহভল হয়ে পড়েছেন তাদের কারো সাথে কথা বলার মত অবস্থা নেই, তবে যতদুর জানতে পেরেছি প্রতিবেশী মহদী গ্রামের ধনু নাথ ও তার ছেলে নিকলেশ নাথ শিশু আলমাছকে নগদ ১০ টাকা ও পরিবারের জন্য কয়েকটি সুপারীর ভাগ দেবার প্রলোভন দেখিয়ে সুপারী পাড়তে গাছে উঠেয়েছিলো, দরিদ্র মানুষ থানা পুলিশে অভিযোগ কে কোন লাভ হবেনা ভেবেই পুলিশকে জানানো হয়নি বলেও জানিয়েছেন তিনি।   ’

উপজেলার মহদী গ্রামের ধনু নাথের ছেলে নিকলেশের বক্তব্য জানতে বুধবার রাতে তার মুঠোফোনে কল হলে সে সাংবাদিক পরিচয় পেয়েই কথা বলতে অনাগ্রহ প্রকাশ করে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়। ’
 
উপজেলার সিংচাপইড় ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান শাহেল আহমদ , আমাকে মঙ্গলবার রাতেই নিহতের পরিবার ও যাদের বাড়িতে  সুপারী পাড়ার জন্য ওই শিশুকে গাছে উঠানো হয়েছিলো তারাও আমাকে শিশুর মৃত্যুর বিষয়টি অবহিত করেছিলেন কিন্তু থেকে জানানো হয়েছে, পরবর্তীতে কী ভাবে ওই শিশুর লাশ দাফন করা হয়েছে আমি সে বিষয়ে অবহিত নই কিংবা কেউ আমাকে অবহিত করেননি। ’

ছাতক থানার ওসি মো.  আশেক সুজা মামুন বলেন, এ ব্যাপারে কেউ কোন অভিযোগ নিয়ে থানায় আসেননি। ’

সম্পাদনায় - নিশি / এসএনএন২৪.কম


keya