১:৫৯ পিএম, ১৯ আগস্ট ২০১৯, সোমবার | | ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০




প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার

বিবেকের সঠিক পরিচর্যায় সাহিত্য চর্চা অপরিহার্য

৩০ জানুয়ারী ২০১৯, ০৩:১৯ পিএম | ফখরুল


এসএনএন২৪.কম : চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে প্রথম নারী উপ-উপাচার্য ও বরেণ্য কথাসাহিত্যিক প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার বলেছেন, সমাজ, সংস্কৃতি ও সভ্যতার সঙ্গে কল্যাণকর সংযুক্তির নাম সাহিত্য।  

প্রতিনিয়ত সাহিত্য চর্চা মানুষকে সচেতন করে।  মানুষের বিবেককে জাগ্রত করে।  সর্বোপরি মানুষকে মনুষ্যত্ববোধে তাড়িত করার মধ্য দিয়ে মানবিক করে। 

তিনি আরো বলেন, দিন দিন পৃথিবীতে শিক্ষিত ও ধনী মানুষের সংখ্যা বাড়লেও কমছে বিবেকবান মানুষ।   সামান্য লোভেই মানুষ তার স্বকীয়তাবোধ ও মনুষ্যত্ব হারাচ্ছে, হারাচ্ছে বিবেক বুদ্ধি।   সুন্দর এ পৃথিবীর মানুষগুলো দিন দিন স্বার্থপর হয়ে উঠছে।  বিবেকের সঠিক পরিচর্যার জন্য সাহিত্য চর্চা অপরিহার্য।  

আজীবন বাংলা সাহিত্যের ছাত্রী হয়ে থাকতে চান উল্লেখ করে নারীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, প্রথম এবং প্রধান কথা হলো নারী মাত্রই যেন অবশ্যই শিক্ষা গ্রহণ করে।   শিক্ষা ছাড়া কোনো বিকল্প নেই।   নারীর অগ্রগতিতে শিক্ষাই মূল সূত্র।   নারীর সকল কষ্ট দূরীভূত হবে যদি সে শিক্ষার মাধ্যমে আত্মমর্যাদা ও আত্মপ্রতিষ্ঠার সুযোগ সৃষ্টি করে নিতে পারে।   

শিক্ষার্থীদের নিয়ে অনেক স্বপ্নের কথা উল্লেখ করে স্কুলজীবন থেকেই প্রগতিশীল রাজনীতির সঙ্গে জড়িত এবং বিভিন্ন মিছিল-মিটিং থেকে শুরু করে দেশের সব আন্দোলন সংগ্রামে সক্রিয় থাকা বীর নারী ড. শিরীণ আরো বলেন, জীবনের মূল কেন্দ্রে পৌঁছাতে হলে শিক্ষা ছাড়া কোন বিকল্প নেই।  

“অক্ষরে অমরতা” স্লোগানের পতাকাবাহী আন্তর্জাতিক সাহিত্য ও সমাজ কল্যাণমূলক সংগঠন কলম সাহিত্য সংসদ লন্ডন-এর উদ্যোগে চট্টগ্রামে অনুষ্ঠেয় বিশেষ সাহিত্য সম্মেলন উপলক্ষে আয়োজিত প্রস্তুতি সভায় ড. শিরীণ আখতার প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।  

বাংলাদেশ ও ইউকে সরকারের রেজিস্টার্ড চ্যারিটিবল অর্গানাইজেশন ‘সারাহ হাবিব ট্রাস্ট লন্ডন’-এর সহযোগী সংস্থা কলম সাহিত্য সংসদ লন্ডন-এর বাংলাদেশ চ্যাপ্টারের সভাপতি লেখক-সাংবাদিক শওকত বাঙালির সভাপতিত্বে গত ২৮ জানুয়ারি সন্ধ্যা ৭টায় চট্টলবন্ধু এস.এম জামাল উদ্দিন মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কবি-সাংবাদিক নাজিমুদ্দীন শ্যামল।  


বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. আবুল হাসান, প্রফেসর ড. মুহম্মদ মাসুম চৌধুরী, শিশুসাহিত্যিক ও স্বকাল সাহিত্য সংসদের পরিচালক অরূণ শীল, শিক্ষাবিদ অধ্যাপক শামসুদ্দীন শিশির।  

আলোচনায় অংশ নেন ডা. খাস্তগীর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, আলোকবর্তিকা প্রতিষ্ঠাতা ওসমান ফারুকী হিমাদ্রী, এম শাহাদৎ নবী খোকা, সংগঠনের চট্টগ্রাম জেলা সহ-সভাপতি সাহিত্যিক করুণা আচার্য, এস.এমএইউ জাহাঙ্গীর হাছান, সাধারণ সম্পাদক শেখ আনোয়ার হোসেন রানা, মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সন্তান মোঃ ইউসুফ প্রমুখ।  

প্রধান আলোচকের বক্তব্যে সাংবাদিক নেতা নাজিমুদ্দীন শ্যামল বলেন, চট্টগ্রাম সবকিছুতেই এগিয়ে।  তাই বিশেষ সাহিত্য সম্মেলনও গুরুত্বের দাবি রাখে। 

সভাপতির বক্তব্যে শওকত বাঙালি বলেন, কলম সাহিত্য সংসদ লন্ডন শুধুমাত্র সাহিত্য সংগঠন নয়।   এটি সমাজসেবামূলক সংগঠনও।   এই সংগঠনের ব্যানারে বিশ্বজুড়ে লেখালেখির সাথে জড়িতদের অভূতপূর্ব শব্দসেতু নির্মাণে ব্রতী হয়েছি আমরা। 

সভায় সর্বসম্মতিক্রমে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামে বিশেষ সাহিত্য সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ এবং সম্মেলন উপলক্ষে প্রফেসর ড. শিরীণ আখতারকে চেয়ারম্যান, সাংবাদিক নাজিমুদ্দীন শ্যামল ও প্রফেসর আবুল হাসানকে কো-চেয়ারম্যান, প্রফেসর ড. মাসুম চৌধুরীকে প্রধান সমন্বয়কারী, সাংবাদিক শওকত বাঙালিকে মহাসচিব ঘোষণা করে ১০১ সদস্যের কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।  

এছাড়া, শিশুসাহিত্যিক অরুণ শীলকে সম্মেলন উপলক্ষে প্রকাশিতব্য স্মারকের সম্পাদক নির্বাচন করা হয়।  এদিকে, কমিটি পূর্ণাঙ্গকরণকল্পে আগামী ১ ফেব্রুয়ারি, শুক্রবার, সকাল ১১টায়, দৈনিক আজাদীর পাশের বিল্ডিং ৭, বঙ্গবন্ধু ভবন ৩য় তলায় চট্টলবন্ধু এস.এম জামাল উদ্দিন মিলনায়তনে পরবর্তী সভা অনুষ্ঠিত হবে।