৬:৫৮ পিএম, ১৭ জুলাই ২০১৯, বুধবার | | ১৪ জ্বিলকদ ১৪৪০




সাতকানিয়া-লোহাগাড়া স্টুডেন্টস ফোরামের নবীন বরণ অনুষ্ঠানে চবি উপাচার্য

২৬ এপ্রিল ২০১৯, ০৫:২৩ পিএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, সত্য-সুন্দর-কল্যাণ আর জ্ঞানের আলোয় আলোকিত হওয়ার তীর্থ স্থান হল বিশ্ববিদ্যালয়।  এখানে যারা ভর্তি হয় তারা প্রত্যেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সে আলোয় আলোকিত হয়ে বিশ্বময় আলো ছড়ায়।  ২৫ এপ্রিল চবি গ্রন্থাগার অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত সাতকানিয়া-লোহাগাড়া স্টুডেন্টস ফোরাম, চবি’র নবীন বরণ-২০১৯ এ প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন। 

উপাচার্য তাঁর ভাষণে নবীন শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয়ের সবুজ ক্যাম্পাসে স্বাগত জানান।  তিনি বলেন, এ ধরণের অ ল ভিত্তিক সংগঠনগুলোর বিভিন্ন কর্মকান্ড শিক্ষার্থীদের মাঝে পারস্পরিক সৌহার্দ-সম্প্রতি ও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক সৃষ্টিতে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে; পাশাপাশি নবীন-প্রবীনদের মাঝে তৈরি করে সেতুবন্ধন।  তিনি আরও বলেন, কঠোর পরিশ্রম এবং অধ্যবসায় ছাড়া জীবনে সাফল্য অর্জন সম্ভব নয়।  লক্ষ্য স্থির রেখে সাফল্যের শীর্ষে পৌঁছাতে হলে একদিকে যেমন সময়ের প্রতি নিষ্ঠাবান থাকতে হয় অন্যদিকে আধুনিক যুগোপযোগী বিজ্ঞানসম্মত গুণগত শিক্ষায় অবিরাম জ্ঞান অর্জনে আত্মনিয়োগ করতে হয়। 

উপাচার্য আরও বলেন, আমাদের নবীন মেধাবী শিক্ষার্থীরা তাদের মেধাকে কাজে লাগিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় হতে জ্ঞান আহরণের মাধ্যমে জ্ঞানের আলোয় আালোকিত হয়ে দেশ-জাতি তথা বিশ্বের যত অন্ধকার-অকল্যাণ-অসুন্দরকে দূরীভূত করে আলোর প্রজ্জ্বলন ঘটাবে এটাই প্রত্যাশিত।  মাননীয় উপাচার্য নবীন শিক্ষার্থীদের ফুলদিয়ে বরণ করেন।  

সাতকানিয়া-লোহাগাড়া স্টুডেন্টস ফোরাম, চবি’র সভাপতি জনাব শ্রী শিমুল বিশ্বাস-এর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক জনাব রাশেদ সিকদার-এর পরিচালনায় এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন লোক প্রশাসন বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড.আমীর মুহাম্মদ নসরুল্লাহ, একই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জনাব মুহাম্মদ ইয়াকুব, মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জনাব মো. কপিল উদ্দীন, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জনাব এস এম আবু জাহেদ চৌধুরী এবং আইন অনুষদের সহকারী অধ্যাপক জনাব খালিদ আহসান সাঈদ। 

অনুষ্ঠানে চবি’র বিভিন্ন বিভাগের সম্মানিত শিক্ষকবৃন্দ, সাতকানিয়া-লোহাগাড়া স্টুডেন্টস ফোরাম, চবি’র নেতৃবৃন্দ ও সদস্যবৃন্দ এবং বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন। 


keya