২:৪০ এএম, ১৬ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার | | ১৩ জ্বিলকদ ১৪৪০




বেরোবির হলে অবৈধভাবে অবস্থানরত শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ

০৭ মে ২০১৯, ০২:১২ পিএম | জাহিদ


শিপন তালুকদার, বেরোবি : বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে অবৈধভাবে অবস্থানরত শিক্ষার্থীদের আগামী ৮ মের মধ্যে হল ত্যাগের নির্দেশ দিয়েছে হল প্রশাসন।  রবিবার বঙ্গবন্ধু হলের প্রভোস্ট তাবিউর রহমান স্বাক্ষরিত এক নোটিশের মাধ্যমে এমন নির্দেশনা দেয়া হয়। 

নোটিশে বলা হয়েছে, যাদের ছাত্রত্ব শেষ হয়েছে তাদেরকে আগামী তিনদিনের মধ্যে নিজ নিজ মালামালসহ হলত্যাগ করতে হবে।  যারা হল ত্যাগ করবে না তাদের মালামাল হল প্রশাসন ক্রোক করবে এবং তাদের কোনো দায়িত্ব হল প্রশাসন নেবে না।  নির্দেশনা অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে সরাসরি আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও নোটিশে উলে­খ করা হয়েছে। 

বঙ্গবন্ধু হল সূত্রে জানা যায়, এর আগে পরপর তিনবার অনাবাসিক শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল।  কিন্তু, কেউই হল ত্যাগ করেননি।  ফলে, যারা নতুন করে হলে ভর্তি হয়েছেন তারা কেইউ হলে উঠতে পারছেন না। 

হল সূত্রে আরও জানা যায়, হলের মোট ২৪০ টি আসনের মধ্যে ২০০ টির মতো আসনে অনাবাসিক শিক্ষার্থীরা অবস্থান করে আছে।  যাদের অনেকেরই ছাত্রত্ব শেষ হয়েছে।  এর ফলে হলটি প্রতিমাসে আবাসন ফি বাবদ বড় অংকের টাকা থেকে বি ত হচ্ছে।  এতে, হলের কর্মচারীদের নিয়মিত পারিশ্রমিক প্রদান করা সম্ভব হচ্ছে না।  এবার চতুর্থবারের মতো এধরনের নির্দেশনা দেয়া হল।  এরপর আর সুযোগ দেয়া হবে না। 

এবিষয়ে জানতে চাইলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের প্রভোস্ট তাবিউর রহমান প্রধান বলেন, হলে অবস্থানকারী অধিকাংশ শিক্ষার্থী অবৈধভাবে হলে অবস্থান করছে।  তাদের অনেকের মাস্টার্সের রেজাল্ট অনেক আগেই প্রকাশ হয়েছে।  এরপরও তারা হল ছাড়ছে না।  এর ফলে যাদের কে নতুন করে হলে ভর্তি করানো হয়েছে তারা হলে উঠতে পারছে না।  অনেকেই বিসিএস প্রিলিমিনারী পরীক্ষা পর্যন্ত সময় চেয়েছিল।  আমরা মানবিক দিক বিচার করে তাদেরকে পরীক্ষা পর্যন্ত হলে অবস্থান করার সুযোগ দিয়েছি।  কিন্তু, আগামী ৮ তারিখের মধ্যে হল ছাড়ার যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে তা অমান্য করলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 


keya