২:৫০ পিএম, ২১ জুলাই ২০১৯, রোববার | | ১৮ জ্বিলকদ ১৪৪০




চবি সমাজতত্ত্ব বিভাগের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী সমিতির ইফতার মাহফিল

১২ মে ২০১৯, ০২:৪০ পিএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে ১১ মে ২০১৯ তারিখ বিকেল ৫.৩০ টায় প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী সমিতি, সমাজতত্ত্ব বিভাগ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে চিটাগং ক্লাবে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। 

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ভাষণ দেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী।  অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চবি সমাজতত্ব বিভাগের সুপারনিউম্যারারী প্রফেসর এবং বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়ের নবনিযুক্ত উপাচার্য প্রফেসর ড.এ এফ ইমাম আলি।  

উপাচার্য তাঁর ভাষণে ইফতার মাহফিলে উপস্থিত সকলকে পবিত্র মাহে রমজানের শুভেচ্ছা জানান।  তিনি বলেন, রমজান মানুষকে সংযম ও আত্মশুদ্ধির শিক্ষা দেয়।  সকল অন্যায় অশ্লীল কর্মকান্ড থেকে সংযত হয়ে মহান আল্লাহর অসীম রহমত প্রাপ্তির আশায় বিশ্ব মুসলিম উম্মাহ রোজা ব্রত পালন করে।  তিনি বলেন, শুধু পানাহার থেকে বিরত থাকা নয়; রোজা মনের কুপ্রবৃত্তির বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে আমাদের শরীরের প্রত্যেক অঙ্গ-প্রত্যঙ্গকে সিয়াম সাধনায় আত্মনিয়োগ করতে শেখায়; পাশাপাশি বিগত দিনের সকল গুণাহ ক্ষমা প্রার্থনার মাধ্যমে মহান আল্লাহর নৈকট্য লাভের পথ সুগম করে।  উপাচার্য ইফতার মাহফিলে উপস্থিত সকলকে পবিত্র মাহে রমজানের গুরুত্ব ও তাৎপর্য হৃদয়ে ধারণ করে সকল অন্যায়-অপকর্ম থেকে বিরত থেকে পবিত্র জীবন গঠনের আহ্বান জানান।   

প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী সমিতি, সমাজতত্ত্ব বিভাগ, চবির সভাপতি আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দিনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক জনাব আবুল কালাম আজাদের পরিচালনায় ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে চবি সমাজ বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. ফরিদ উদ্দিন আহামেদ, সমাজতত্ত্ব বিভাগের সভাপতি প্রফেসর মো. লিয়াকত আলী, প্রফেসর ড. গাজী সালেহ উদ্দিন, প্রফেসর ড. মো. ওবায়দুল করিম এবং চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ-এর সভাপতি ও চবি এলামনাই এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক জনাব মাহাবুবুল আলম, উক্ত বিভাগের প্রাক্তন শিক্ষার্থী জনাব রোকসানা ইসলাম রীতা, জনাব রাশেদ মনোয়ার এবং অধ্যক্ষ মীর কফিল উদ্দিনসহ প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী সমিতির বিপুল সংখ্যক প্রাক্তন শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।  চবি উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী। 


keya