১০:৪২ এএম, ২১ মে ২০১৯, মঙ্গলবার | | ১৬ রমজান ১৪৪০




তারাকান্দায় দুই প্রভাবশালীর রাস্তা দখল : এলাকা জুড়ে উত্তেজনা

১৩ মে ২০১৯, ০৮:৫৯ পিএম | জাহিদ


নাজমুল হক, তারাকান্দা (ময়মনসিংহ) : ময়মনসিংহের তারাকান্দায় দুই প্রভাবশালী মৎস ফিসারীর মালিক কর্তৃক গ্রামীন জনপদের গুরুত্বপূর্ন একটি রাস্তা একাংশ অবৈধভাবে দখল করে নেয়ায় জনদুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে।  সংশ্লিষ্ট ৪ গ্রামের জন সাধারনের যাতায়াতের একমাত্র রাস্তাটির যাতায়াত বন্ধ করে দেওয়ায় এলাকা জুড়ে উত্তেজনা বিরাজ করছে।  

সরজমিন পরিদর্শন করে দেখা গেছে, তারাকান্দা-শ্যামগঞ্জ রাস্তার ‘পাকুরিতলা থেকে-কলহরি’ পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের কাচা রাস্তা দিয়ে ওই এলাকার শাকের হাটি, কলহরি, বারইপাড়া ও পাকুরিতলা এই চার গ্রামের যাতায়াতের যুগ যুগ ধরে রাস্তাটিই একমাত্র মাধ্যম।  

নিদৃষ্ট রাস্তা ঘেষে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে পাকুরিতলা বাজার, জামে মসজিদ,প্রধান মন্ত্রীর অনুদানে প্রতিষ্ঠিত আলোর ঘর প্রাথমিক বিদ্যালয়, পাকুরিতলা দাখিল মাদ্রাসা। রাস্তার পাশে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্টির বসতি। আছে দুর্গামন্দির।  

স্থানীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ বাট্টাভাট পাড়া উচ্চ বিদ্যালয়,বঙ্গবন্ধু ডিগ্রি কলেজ,মহিলা কলেজে পড়ুয়া ছাত্রছাত্রী, ক্ষুদে ব্যবসায়ী, নিদৃষ্ট ৪ গ্রামের মানুষের এ রাস্তা ছাড়া যাতায়াতের বিকল্প নেই।  

স্থানীয়রা অভিযোগ করে জানান, পাকুরিতলা গ্রামের প্রভাবশালী মৎসচাষী নজরুল ইসলাম ও দিদারুল আলম স্বীয় স্বার্থে তাদের মৎস খামারের চার পাশে কাটা তারের বেড়া দিতে গিয়ে নিদৃষ্ট রাস্তার পাচশত গজ জুড়ে পাকা খুটি পুতে অবৈধভাবে নিজের দখলে নিয়েছে।  রাস্তার মাঝখানে প্রায় পাচশত গজ রাস্তা নিয়ে আট-দশফুট পর পর পাকা খুটি পুতে দিয়ে যাতায়াত ছোট খাট যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে।  চলছে কাটা তারের বেড়া দেয়ার মিশন।  

এ অবস্থায় স্কুল কলেজের ছাত্র ছাত্রী হাট বাজার, ব্যবসা বানিজ্য, মসজিদ মন্দিরে যাতায়াতে জন দুর্ভোগ চরমে পৌছেছে।  

ইউপি সদস্য উম্মে কুলছুম, ট্রাইবাল ওয়েল ফেয়ার এ্যাশোসিয়েশনের সভাপতি রবীন্দ্র চন্দ্র বিশ্বাস জানান, ৪ গ্রামের মানুষ সহ ছাত্র ছাত্রী ধর্ম প্রান মানুষের মসজিদ, মন্দিরে যাতায়াত ব্যহত হচ্ছে।  এলাকাবাসী চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে।  রবীন্দ্র বিশ্বাস আরো বলেন, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্টি সম্প্রদায় রীতিমত ঘর বন্ধী রয়েছে।  এ নিয়ে এলাকা জুরে উত্তেজনা বিরাজ করছে।  এলাকাবাসী এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করেছেন।