৯:৫৫ পিএম, ২৩ আগস্ট ২০১৯, শুক্রবার | | ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০




রংপুরে হোটেল-বেকারির মালিক সমিতির অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট

২৬ মে ২০১৯, ০৩:৪২ পিএম | জাহিদ


শিপন তালুকদার, বেরোবি : রংপুরে ভেজালবিরোধী ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে অস্বাভাবিক জরিমানা করার অভিযোগে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন রংপুরের হোটেল-বেকারি মালিক সমিতি। 

শনিবার যৌথ সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে রংপুর নগরের সব হোটেল, রেস্তোরাঁ, বেকারি, চাইনিজ রেস্টুরেন্ট, ফাস্ট ফুড ও মিষ্টির দোকান অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধের ঘোষণা দেয় রংপুর জেলা রেস্তোরাঁ ও বেকারির মালিক সমিতি। 

বাংলাদেশ রেস্তোরাঁ মালিক সমিতি, রংপুর জেলা শাখার সভাপতি আব্দুল মজিদ খোকন ও বাংলাদেশ ব্রেড অ্যান্ড বিস্কুট ফ্যাক্টরি মালিক সমিতি, রংপুর জেলা শাখার সভাপতি নুরুল হক মুন্না স্বাক্ষরিত ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৩ মে নগরীর জুম্মাপাড়ার মিঠু হোটেলকে ২ লাখ, জলকর এলাকার ফুলকলি ব্রেড অ্যান্ড কনফেকশনারিকে ৩ লাখ, এভরিডে ফুড প্রোডাক্টসকে ১ লাখ ও সোনালি বেকারিকে ৩ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।  প্রায় প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের মালিক ব্যাংক ঋণ ও মহাজনের দেনার দায়ে জর্জরিত।  এর ওপর যদি এভাবে অমানবিক ও অস্বাভাবিক হারে জরিমানা করা হয় তাহলে ব্যবসায়ীরা ধ্বংস হয়ে যাবে। 

বিজ্ঞপ্তিতে দাবি করা হয়, হোটেল রেস্তোরাঁ ও বেকারি ব্যবসায় ভেজাল দেয়ার কিছু নেই।  আমরা কাঁচামাল ক্রয় শেষে খাদ্য প্রস্তুত করে বিক্রি করে থাকি।  এতে ক্ষতিকর রং বা রাসায়নিক দ্রব্য ব্যবহার হয় না।  ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে অনুমাননির্ভর জাজমেন্ট কতটুকু ন্যায়সংগত তা বিচার্য বিষয়।  ল্যাবটেস্ট ছাড়া কাউকে অভিযুক্ত করা কতটুকু যুক্তিসংগত বা ন্যায়সংগত? আমাদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে।  কোনো উপায়ান্তর না পেয়ে আমাদের প্রতিষ্ঠানগুলো অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।