৮:৪১ এএম, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার | | ১৭ মুহররম ১৪৪১




নগরে গভীর রাতে অ্যাকসেস রোডের কাজ পরিদর্শনে মেয়র নাছির

২৮ মে ২০১৯, ১১:৩৪ এএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : চট্টগ্রাম নগরে নির্মাণাধীন আগ্রাবাদ অ্যাকসেস রোডের কাজের অগ্রগতি দেখতে গভীর রাতে সেখানে ছুটে গেলেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন। 

সোমবার (২৭ মে) দিনগত রাত ১২টার দিকে তিনি সেখানে গিয়ে প্রায় এক ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থেকে কার্পেটিংয়ের কাজ দেখেন এবং উপস্থিত প্রকৌশলীদের বিভিন্ন নির্দেশনা দেন।  

এর আগে নগরের পোর্ট কানেক্টিং রোডের কাজও একইভাবে পরিদর্শন করেন মেয়র। 

চসিকের প্রকৌশল বিভাগ সূত্রে জানা যায়, ‘সিটি গর্ভন্যান্স প্রজেক্টের (ব্যাচ-২)’ আওতায় জাপান ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সির (জাইকা) অর্থায়নে এ দু’টি সড়কের উন্নয়নকাজ বাস্তবায়ন হচ্ছে।  এর মধ্যে প্রায় ৪৯ কোটি টাকা ব্যয়ে আগ্রাবাদ অ্যাকসেস রোডের ২ দশমিক ২০ কিলোমিটার এবং প্রায় ১০০ কোটি টাকা ব্যয়ে নিমতলা থেকে অলংকার মোড় পর্যন্ত পোর্ট কানেক্টিং রোডের ৬ কিলোমিটার সড়কের উন্নয়ন করা হচ্ছে।  ২০১৭ সালের ২০ নভেম্বর এ উন্নয়নকাজ শুরু হয়। 

সূত্র আরও বলছে, ঈদের আগেই রোড দু’টির এক পাশের কাজ শেষ করতে চায় সিটি করপোরেশন।  

কানেক্টিং রোডের কাজ পরিদর্শনের সময় মেয়র বলেন, আগ্রাবাদ অ্যাকসেস ও পোর্ট কানেক্টিং রোডের কাজ নিয়মিত মনিটরিং করা হচ্ছে।  আগ্রাবাদ অ্যাকসেস রোডের বেপারীপাড়া থেকে পোর্ট কানেক্টিং রোডের দক্ষিণাংশ এবং পোর্ট কানেক্টিং রোডের নিমতলা থেকে ওয়াপদা পর্যন্ত রাস্তার পূর্বাংশ ঈদের আগে কার্পেটিং লেয়ারের কাজ শেষ করে যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে।  সড়কের পাশে আরসিসি ড্রেন করা হয়েছে।  মিড আইল্যান্ড হবে, বিউটিফিকেশনও করা হবে, বসবে এলইডি লাইট।  সব মিলিয়ে সড়ককে দৃষ্টিনন্দন করা হবে। 

মেয়র বলেন, পোর্ট কানেক্টিং রোড দিয়ে প্রতিদিন ২০-২৫ হাজার ট্রাক পোর্টে ঢোকে এবং বের হয়।  এটা চ্যালেঞ্জিং কাজ।  রাস্তার পাশে দু’টি টার্মিনাল আছে, রাস্তায়ও ট্রাক দাঁড়িয়ে থাকে।  এখানে কাজ করা অনেক কঠিন।  আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এবং এক সপ্তাহ একনাগাড়ে কাজ করা গেলে রাস্তা দু’টির একপাশে যান চলাচল করতে পারবে। 


keya