৭:৪৩ এএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শুক্রবার | | ২০ মুহররম ১৪৪১




অবশেষে বয়স্ক ভাতার কার্ড পেলেন ১১৫ বছর বয়সী নারী

২৮ মে ২০১৯, ০৮:২৬ পিএম | জাহিদ


জাহাঙ্গীর আলম, নেত্রকোণা : বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে খবর প্রকাশের পর বয়স্ক ভাতার কার্ড পেয়েছেন নেত্রকোণা জেলার  মদন উপজেলার শতবর্ষী বৃদ্ধা খুদ বানু। 

মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ওয়ালীউল হাসান ও উপজেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের উদ্যোগে বিশেষ ব্যবস্থায় তার হাতে বয়স্ক ভাতার কার্ড তুলে দেওয়া হয়। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন মদন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদ, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা ইসমাইল হোসেন, এস,এ,টিভির সাংবাদিক দেবল চন্দ্র দাস,বাংলা টিভির সাংবাদিক মনির চন্দ্র দাস, চ্যানেল এস, ও এস এন এন ২৪ টিভির সাংবাদিক জাহাঙ্গীর আলমসহ এলাকার গণমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। 

বৃদ্ধা খুদ বানুকে বয়স্ক ভাতার কার্ডের পাশাপাশি  নগদ অর্থ সহায়তাও প্রদান করেন ইউএনও, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও ইউপি চেয়ারম্যান। 

জানা যায়, বাক ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী শতবর্ষী খুদ বানুর বাস নেত্রকোনার মদন উপজেলার কাইটাইল ইউনিয়নের শিবাশ্রম গ্রামে।  তার স্বামী আবুল হাসেমের মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৫০ বছর আগে।  তারপর থেকে ভিক্ষাবৃত্তি করেই জীবন নির্বাহ করছেন খুদ বানু।  কারণ তার আপনজন বলতে আর কেউ বেঁচে নেই।  বয়সের ভারে অনেক আগেই কর্মশক্তি হারালেও পেটের ক্ষুধা মেটাতে মানুষের ঘরে ঘরে হাত পাততে হয় তাকে। 

বাক প্রতিবন্ধী হওয়ায় খুদ বানুকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তিনি কিছুই বলতে পারেন না।  শুধু মাথা নাড়িয়ে ইশারা ইঙ্গিত করেন। 

স্থানীয়দের সহায়তায় নির্মিত টিনের একটি ছাপড়া ঘরে তার বাস।  সেই ঘরে আসবাবপত্র বলতে একটি মাত্র চৌকি আছে, আর কিছুই নেই।  ঘরের মেঝেতে গজিয়েছে বিভিন্ন ধরনের আগাছা।  বসবাসের অযোগ্য ঘরেই থাকেন বৃদ্ধা খুদ বানু। 

মদন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়ালীউল হাসান জানান, উনার সম্পর্কে কিছু জানতাম না।  বিভিন্ন মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশের পর জানতে পারি।  এরই প্রেক্ষিতে তাকে বয়স্ক ভার্তার কার্ড প্রদান করা হয়েছে।