১০:১৯ পিএম, ২৪ জুন ২০১৯, সোমবার | | ২০ শাওয়াল ১৪৪০




পশ্চিমবঙ্গে মুসলিম কর্মচারীরা ঈদ বোনাস পাচ্ছেন

২৯ মে ২০১৯, ১১:৩৭ এএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : ইদের আগে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে মুসলিম সরকারি কর্মচারীদের জন্য বোনাস ঘোষণা করেছে রাজ্য সরকার।  গতকাল (২৮ মে) এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি জারি করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। 

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ৩০ থেকে ৩৬ হাজার টাকার মধ্যে বেতন হলে তারা ৮ হাজার টাকা পাবেন।  ৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতনের কর্মচারীরা ৪ হাজার টাকা অতিরিক্ত পাবেন। 

প্রসঙ্গত, গতবছর ৩,৬০০ টাকা অতিরিক্ত পেয়েছিলেন সংখ্যালঘু কর্মচারীরা।  এবার তা ৪০০ টাকা বাড়ল। 

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ইদের আগে এখন মুসলিম সরকারি কর্মচারীদের বোনাস দেয়া হলো।  তবে ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে ১ অক্টোবরের মধ্যে বোনাস পাবেন বাকি অর্থাৎ অন্য ধর্মের সরকারি কর্মচারীরা। 

লোকসভা ভোটে পোস্টাল ব্যালটের গণনায় সব জায়গাতেই শাসক দলের চেয়ে এগিয়ে ছিল বিজেপি।  মনে করা হচ্ছে, ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ পেশে দীর্ঘসূত্রিতা ও বকেয়া মহার্ঘ ভাতার কারণে রাজ্য সরকারের উপর ক্ষুব্ধ সরকারি কর্মচারীরা।  গত সোমবার আরও একবার ষষ্ঠ বেতন কমিশনের মেয়াদ বাড়ানো হয়। 

শনিবার আরও এক দফা রাজ্যের বেতন কমিশনের মেয়াদ বাড়ায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার।  ৭ মাসের জন্য মেয়াদ বৃদ্ধি করা হয়েছে কমিশনের।  ষষ্ঠ বেতন কমিশনের মেয়াদ বেড়েছে চলতি বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত। 

২০১৫ সালের ২৭ নভেম্বর গঠন করা হয়েছিল ষষ্ঠ বেতন কমিশনে গঠন করা হয়েছিল।  এ নিয়ে মোট পাঁচ দফায় বাড়ানো হলো ষষ্ঠ বেতন কমিশনের মেয়াদ।  সরকারি কর্মচারী সংগঠনগুলো দাবি করে, আসলে কমিশনের নামে ছলনা করা হচ্ছে।  ২০১১ সালে মাইনে দ্বিগুণ বাড়ানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল বর্তমান রাজ্য সরকার।  কিন্তু সেই প্রতিশ্রুতি রাখেনি তারা।  ইতোমধ্যে মহার্ঘ ভাতাও রয়েছে বকেয়া।  সেনিয়েও চলছে টানাপোড়েন।  আর ষষ্ঠ বেতন কমিশনের মেয়াদ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ার অর্থ হলো ৪ বছর ১ মাস সময়সীমা, যা কার্যত সারা ভারতে বিরল বলে মনে করছেন রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা।