১:১৯ এএম, ১৯ আগস্ট ২০১৯, সোমবার | | ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০




বার্লিনে আন্তর্জাতিক কার্নিভাল উৎসবে বর্ণিল বাংলাদেশ

১১ জুন ২০১৯, ০৩:৪৫ পিএম | নকিব


এসএনএন২৪.কম : একটি বাসযোগ্য পৃথিবী গড়তে ও মানুষে মানুষে সম্প্রীতি বাড়ানোর লক্ষ্যে জার্মানির রাজধানী বার্লিনে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল বিশ্বের অন্যতম বর্ণিল পথ সংস্কৃতিক উৎসব কার্নিভাল ডেয়ার কুলটুওর অর্থ্যাৎ সংস্কৃতি উৎসব এর ২৪ তম আসর। 

শুক্রবার ৭ জুন থেকে শুরু হওয়া ৪ দিনব্যাপী কার্নিভাল এর উৎসবে বিশ্বের প্রায় ১০ লাখ মানুষ অংশগ্রহণ করেন।  ছিল প্রবাসী বাংলাদেশিদের সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন বাংলা কালচারাল ফোরামের উদ্যোগে বাংলাদেশের বর্ণাঢ্য অংশগ্রহণ। 

রবিবার ২৪তম এই আসরে পথ শোভাযাত্রায় অংশ নিতে রং বেরঙের পোশাক আর বাহারী সাজে হাজির হয়েছিল বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত প্রায় সারে ৪  হাজারের ওপর প্রতিযোগী। 

তাদের সবার পরিবেশনা মুগ্ধতা ছড়িয়েছে সব বয়সের দর্শকদের।  মনোমুগ্ধকর এই শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণের আমন্ত্রণপত্র পায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রায় ৭৪টি সাংস্কৃতিক দল, ১০০টির মত ব্যান্ড দল ও ৫০ এর বেশী ডিজে।  প্রায় সবার পরিবশেনায় উঠে আসে পরিবেশ বিপর্যয়, সাম্প্রতিক সময়ের বিশ্ব ও সংস্কৃতি ও নানা সংকট।  আর প্রতিবারের মতো বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত দর্শনার্থীদের প্রশংসাও কুড়িয়েছে কার্নিভালে প্রবাসী বাঙ্গালীদের বর্ণিল অংশগ্রহণ। 

এবারের পথশোভাযাত্রায় মূল বিষয়টি ছিল ধর্ম নিরপেক্ষতায় উদ্দীপ্ত হয়ে আবহমানকালের গ্রাম বাংলার বর্ণিল সংস্কৃতিকে বুকে লালন করে সামাজিক ও নৈতিক অবক্ষয়কে রুখে দেয়া।  এই প্রসঙ্গে বাংলা কালচারাল ফোরামের পক্ষে খালিদ নোমান নমি ও নূরজাহান খান নূরী বলেন, যে অসাম্প্রদায়িক চেতনা নিয়ে মুক্তিযুদ্ধ হয়েছিল তারই ধারাবাহিতা এটি। 

নান্দনিক এই পথশোভাযাত্রায় জার্মানির নানা প্রান্ত থেকেই বাঙ্গালীরা অংশগ্রহণ করেন।  নারী পুরুষ সবাই সেজেছিল বাহারী বাঙালীয়ানায়।  দারুন এই সাংস্কৃতিক উৎসবে অংশ নেন, রুখসানা দিল রিয়াজ, আব্দুল্লাহ আল ফারুক, লিপি আহমেদ, রাধিতা, সিগি, হেলেন, সাংবাদিক শরাফ আহমেদ, অপু আলম, সাব্বির, সাকী চৌধুরী, অমৃতা, মারুফ, নাজমুন নেসা পিয়ারী, সৈয়দ বাবুল, মামুন আহসান খান, মাসুদ হোসেন পিটু, জাফর ইকবাল, শাহেদা, খালেদ বিন রশিদ, কাবেরী, ফেরদৌসি, রোকসানা আহমেদ, মুহিউদ্দিন আহমেদ, ইসমত জেসী,  লুৎফুল খান, মিলনসহ একঝাঁক তরুণ তরুণী । 

তবে শত বাঁধা ডিঙিয়ে  বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে সামনের দিকে এমন প্রত্যাশা এবারের কার্নিভালে যোগ দিতে আসা সবার।