৩:০৯ এএম, ২৬ আগস্ট ২০১৯, সোমবার | | ২৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০




নেত্রকোণা পূর্বধলায় অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষককে হত্যা, আটক ৩

১২ জুন ২০১৯, ১০:৪৫ এএম | নকিব


জাহাঙ্গীর আলম, নেত্রকোণা , প্রতিনিধি : নেত্রকোণা  জেলার পূর্বধলায় উপজেলায় এ কে এম কুতুব উদ্দিন নামে (৫৫) এক শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে।  

মঙ্গলবার উপজেলার ধলামূলগাঁও ইউনিয়নের ভবানীপুর গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে এই নিহতের ঘটনাটি ঘটেছে। 

স্বজনদের অভিযোগ কুতুব উদ্দিনকে পিটিয়ে হত্যা করেছে তার ভাতিজা আজিজুল হক,  মোজাম্মেল হক, ‍আব্দুস সাত্তার, এমদাদুল হক, বাশার, মাসুদ তাদের লোকজন।  কুতুব উদ্দিন (৫৫) উপজেলার ভবানীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক। 

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, জেলার পূর্বধলার ভবানীপুর গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক কুতুব উদ্দিনের সাথে দীর্ঘদিন ধরে তার ভাই সামছুল ইসলামের ছেলে আজিজুল হক ও মোজাম্মেল হকের জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছিল।  এরই জের ধরে আজ মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়।  এক পর্যায়ে কুতুব উদ্দিনের ওপর চড়াও হয় ভাতিজা মোজাম্মেল হক ও আজিজুল হক। 

হামলাকারীরা কুতুব উদ্দিনকে লাঠী দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে।  আশংকাজনক অবস্থায় তাকে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে নেয়া হলে আজ বিকেল ৩টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।  ঘটনার পর থেকে হামলাকারীরা বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে।  পুলিশ ঘটনায় জড়িত ৩ জনকে আটক করেছে। 

পূর্বধলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম জানান, নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।  এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।  হামলাকারীদের আটকের চেষ্টা চলছে। 


keya