১২:৫৮ পিএম, ২১ জুলাই ২০১৯, রোববার | | ১৮ জ্বিলকদ ১৪৪০




বিলাইছড়িতে আ’মীলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠা বাষির্কী উদযাপন

২৩ জুন ২০১৯, ০৭:১৪ পিএম | নকিব


পুষ্প মোহন চাকমা, বিলাইছড়ি প্রতিনিধিঃ বিলাইছড়িতে রবিবার (২৩ জুন) বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের গৌরব ও সাফল্যের  ৭০ তম প্রতিষ্ঠা বাষির্কী উদযাপন করা হয়েছে।  

উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে এবং অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের সমন্বয়ে উপজেলা শিল্পকলা একাডেমীতে নানা আয়োজনের মধ্যেদিয়ে দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়েছে। 

এ উপলক্ষ্যে উপজেলা শিল্পকলা একাডেমীতে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।  আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি (ভারঃ) অংসাখই মার্মা।  

সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অভিলাষ তঞ্চঙ্গ্যা, সহ-সভাপতি জয়সেন তঞ্চঙ্গ্যা, যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক সাথোয়াই মার্মা, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক অমর কুমার তঞ্চঙ্গ্যা, দপ্তর সম্পাদক প্রদীপ দাশ ।  এ ছাড়াও অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা বক্তব্য রাখেন। 

যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক শুভাশীষ কর এর সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক এস,এম সাহীদুল ইসলাম। 

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, বর্তমান সরকার জনবান্ধব ও উন্নয়নের সরকার।  জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আ.লীগ পরপর তিনবার ক্ষমতা গ্রহণের মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নেওয়ার রেকর্ড সৃষ্ঠি করেছে।  তারা আরও বলেন, আজকে সারা বাংলাদেশের মানুষ যখন উন্নয়নের সুফল ভোগের মাধ্যমে নির্বিঘেœ চলাফেরা করতে পারছে, সেখানে আমরা পার্বত্য চট্টগ্রামের মানুষ যারা আওয়ামীলীগ করি তারা বিভিন্ন দ্বিধা ও প্রতিকূলতার সাথে বাস করছি।  বক্তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে আরও বলেন, যারা আমাদের প্রাণ প্রিয় নেতা প্রয়াত উপজেলা আ.লীগের সভাপতি সুরেশ কান্তি তঞ্চঙ্গ্যাকে গুলি করে হত্যা করেছে এবং যাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে তারা এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছে।  প্রশাসন তাদের বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না।  

বক্তারা প্রশাসনের প্রতি প্রশ্ন রাখেন, কেন প্রশাসন নিরব ভূমিকা পালন করছে।  কেনই বা প্রকৃৃত অপরাধীদের ধরা যাচ্ছেনা? প্রকৃত অপরাধীদের গ্রেফতার করে শাস্তির ব্যবস্থা না নিতে পারলে কঠোর পদক্ষেপের হুঁশিয়ারী দেন বক্তারা। 

এর আগে সকালে প্রতিষ্ঠা বাষির্কী উপলক্ষে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালির আয়োজন করা হয়।  র‌্যালী শেষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।  আলোচনা শেষে কেক কাটার মধ্যদিয়ে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর সমাপ্তি ঘটে। 


keya