৬:৩২ পিএম, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার | | ১৮ রবিউস সানি ১৪৪১




মিরসরাইয়ে জীনের বাদশার কেড়ে নিল ১০ ভরি স্বর্ণ ও সাড়ে তিন লাখ টাকা

২৬ জুন ২০১৯, ০৬:২৮ পিএম | নকিব


রাজু কুমার দে, মিরসরাই প্রতিনিধি : আমি জীনের বাদশা বলছি।  ছেলে মেয়েদের নামাজ পড়তে বলবি। 

সকালে কাউকে না জানিয়ে এতিমদের জন্য আমার বিকাশ নম্বরে (০১৭১৯৭২২৬৯৬) ২১০ টাকা পাঠাবি। 

এভাবে গত কয়েকদিনে মিরসরাইয়ের বারইয়ারহাট পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের জামালপুর গ্রামের কুলসুমারা বেগমকে ফোন করে জীনের বাদশা।  কয়েক দফায় প্রায় সাড়ে ৩লাখ টাকা ও ১০ ভরি স্বর্ণ নিয়ে যায়।  পরে তিনি বুঝতে পারেন প্রতারিত হয়েছেন।  

ভুক্তভোগী কুলসুমারা বেগম জানান, বুধবার ভোরে (০১৮৩৪১০৪৯৯) মোবাইল নম্বর থেকে জীনের বাদশা পরিচয়ে এক ব্যক্তি ফোন দেন।  এসময় এতিমদের খাওয়ার জন্য ২১০ টাকা পাঠাতে বলে।  তিনি কিছু না বুঝে বিভিন্ন হিসাব করে ১১০০ টাকা পাঠান। 

এসময় তাকে একটি স্বর্ণের মূর্তি দেয়া হয়।  মূর্তিটি বাড়িতে আনার পর ওই জীনের বাদশা আবার অন্য একটি নম্বর থেকে ফোন করে।  এসময় তিনি বলেন, মূর্তি ভেতরে একটি কাগজ আছে।  কাগজটি ছেলে মেয়ের নাকে শুকাতে।  কাগজটি ছেলেমেয়ের নাকে শুকানো পর তারা অন্য রকম আচরণ করতে থাকে। 

এসময় ওই জীনের বাদশা অন্য একটি নম্বর থেকে ফোন করে ছেলে মেয়েদের বাঁচাতে হয়ে অনেক টাকা দিতে হবে বলে জানান।  পরে তিনি বারইয়ারহাট গিয়ে ১০ ভরি স্বর্ণলঙ্কার এক ব্যক্তির হাতে তুলে দেন।  পরে কয়েক দফায় বিকাশের মাধ্যমে সাড়ে ৩ লাখ টাকা দিয়েছে। 

জোরারগঞ্জ থানার সেকেন্ড অফিসার আবেদ আলী জানান, জীনের বাদশা মাধ্যমে প্রতারণার বিষয়ে কেউ এখনো থানায় অভিযোগ করেনি।  অভিযোগ পেলে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।