২:০৫ এএম, ১৯ জুলাই ২০১৯, শুক্রবার | | ১৬ জ্বিলকদ ১৪৪০




শ্রীপুরে অজ্ঞান শতবর্ষী বৃদ্ধের স্বজন খোঁজছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ

২৬ জুন ২০১৯, ০৭:৩৩ পিএম | নকিব


আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর(গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অজ্ঞাত এক শতবর্ষী অজ্ঞান বৃদ্ধের স্বজনদের খোঁজছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।  

২৬ জুন বুধবার সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি সম্পর্কে জানা যায়।  

নাম সুলতান (১০০)।  মাত্র একদিন নিরবে আওয়াজ করে এমন জানায় এই বৃদ্ধ।  তবে এর চেয়ে বেশী কিছু বলতে পারেনি তিনি। 

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ সুত্রে জানা যায়, গত ৩১ মে দুইজন ব্যক্তি সিএনজি ড্রাইভার পরিচয়ে অজ্ঞান অবস্থায় এই বৃদ্ধকে জরুরি বিভাগে নিয়ে আসে।  সেদিন কর্তব্যরত চিকিৎসক বৃদ্ধকে জরুরি বিভাগে চিকিৎসা দেয়ার প্রয়োজনীয় ঔষধ লিখে ওই দুজন লোককে প্রেসক্রিপশন দিয়ে বাহির হতে ইনজেকশন আনতে বলে।  কিন্তু প্রেসক্রিপশন হাতে নিয়ে বাহিরের ফার্মেসীতে গেলেও তারা আর জরুরি বিভাগে ফিরে আসেনি।  পরে বৃদ্ধের ভর্তির ব্যবস্থা করে পুরুষ  ওয়ার্ডে পাঠানো হয় ।  

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নার্স সুপারভাইজার ফরিদা আক্তার জানান, অসহায় বৃদ্ধের জন্য আমাদের নার্সদের বাড়ী হতে লুঙ্গি ও গায়ের কাপড় এবং হাসপাতাল হতে কম্বল ও চাদরের ব্যবস্থা করা হয়েছে।  এ হাসপাতালের নৈশপ্রহরী শফিকুল ইসলাম ও পরিচ্ছন্নকর্মী রাজিয়া খাতুন নিয়মিত তার প্রস্রাব-পায়খানা পরিস্কার করে যাচ্ছেন।  এছাড়াও সকল নার্সগন সবসময়ই  সুলতান দাদার খোঁজ খবর নিয়ে থাকেন। 

তিনি আরো জানান,  এর আগেও  ১১ জুন আঃ কাদের (৮০) নামের আরেকজন বৃদ্ধ অজ্ঞান অবস্থায় এখানে আসে।  প্রাথমিক ভাবে তার স্বজনদের কোন খোঁজ খবর পাওয়া যায়নি।   পরে যথাযথ চিকিৎসা দিলে ১৩ দিন (২৩ জুন) পর সুস্থ্য হয়ে তার নিজের বাড়ীতে ফিরে যায় ।  

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মইনুল হক খান জানান, শতবর্ষী সুলতান দাদার জন্য একজন পরিচ্ছন্নকর্মীকে দৈনিক ২০০টাকা দিয়ে রাখা হয়েছে।  এছাড়াও এখানের ডাক্তার ও স্টাফ নার্স নিয়মিত ভাবে উনাকে তদারকি  করে আসছে।   হাসপাতাল হতে উনার জন্য প্রয়োজনীয় নরম খাবারের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।  তবে, উনার স্বজনদের খোঁজ পেলে হয়তো চিকিৎসা কার্যক্রম আরো ফলপ্রসূ হবে বলে আমি মনে করি।