১১:০৭ এএম, ২০ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার | | ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১




রাতের আঁধারে ঢালাই করা সেই প্রধান শিক্ষকের শোকজের জবাবে অসন্তোষ শিক্ষা অফিস

৩০ জুন ২০১৯, ০৭:৪১ পিএম | নকিব


আজিজুল ইসলাম বারী, লালমনিরহাটঃ লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বারান্দা ঢালাইয়ের কাজ রাতের আঁধারে করা সেই প্রধান শিক্ষকের কারন দর্শানোর নোটিশের(শোকজ) জবাবে অন্তোষ প্রথমিক শিক্ষা অফিস। 

রোববার(৩০ জুন) দুপুরে শোকজের জবাবে   অসন্তোষ প্রকাশ করেন আদিতমারী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার এনএম শরিফুল ইসলাম খন্দকার।  

জানা যায়, উপজেলার ভেলাবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ক্ষুদ্র মেরামতের জন্য দুই লাখ টাকা বরাদ্দ দেয় সরকার।  বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ইউপি সদস্য আফছার আলী প্রকল্পটির চেয়ারম্যান হিসেবে তা বাস্তবায়ন করছেন।  ওই প্রকল্পে বিদ্যালয়ের বারান্দা পাকাকরণে ঢালাইয়ের কাজ দেওয়া হয়।  কিন্তু সেই কাজ স্থানীয়দের চোখ ফাঁকি দিয়ে নামমাত্র করতে বারান্দার ঢালাই কাজ করা হয় মধ্যরাতে।  ঢালাইয়ের নিচে সলিংয়ে ইট ও খোয়া দেওয়ার কথা থাকলেও শুধু সিমেন্ট আর বালুর মিশ্রন দিয়ে মাটি ঢেকে দেওয়া হয়েছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ। 

বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন গনমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ায় উপজেলা শিক্ষা অফিসার এনএম শরিফুল ইসলাম খন্দকার ২৪ জুন  বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক ফরিদা ইয়াসমিনকে কারন দর্শানোর নোটিশ(শোকজ) করেন।  রোববার(৩০) জুন সেই শোকজের জবাব দাখিল করেন প্রধান শিক্ষক ফরিদা ইয়াসমিন।  জবাবে প্রধান শিক্ষক উল্লেখ করেন, বিদ্যালয়ের ঢালাইয়ের কাজটি স্থানীয় রাজমিস্ত্রীদের চুক্তি দেয়া হয়।  চুক্তি নিয়ে শ্রমিকরা দিনের পরিবর্তে রাতে কাজ করেন।  এ ছাড়াও বিদ্যালয় চলাকালিন সময় ঢালাই কাজ করা সম্বব ছিল না।  আগামীতে এমন কাজ করবেন না বলেও প্রতিশ্রুতি দিয়ে রাতের আঁধারে ঢালাইয়ের কাজ করায় দুঃখ প্রকাশ করেন প্রধান শিক্ষক।  

সরকার কমিটির মাধ্যমে কাজ করার জন্য নির্দেশনা দেন।  কিন্তু ভেলাবাড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ক্ষুদ্র মেরামতের কাজ স্থানীয় শ্রমিকদের চুক্তি দেয়ায় কাজের মানে অসন্তোষ হয়ে তার বিলে স্বাক্ষর করেননি উপজেলা শিক্ষা অফিসার।  এ ছাড়াও শোকজের জবাবে অসন্তোষ হয়ে বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিভাগিয় ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করার সিদ্ধান্ত নেয় শিক্ষা অফিস। 

আদিতমারী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার এনএম শরিফুল ইসলাম জানান, রাতের আঁধারে বিদ্যালয়ের বারান্দা ঢালাই করায় প্রধান শিক্ষককে শোকজ করা হয়।  সেই শোকজের জবাবে প্রধান শিক্ষক উল্লেখ করেছেন শ্রমিকদের চুক্তি দিয়ে কাজ করানো হয়েছে।  যা বিধি সম্মত নয়।  তাই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিভাগিয় ব্যবস্থা নিতে সুপারিশ করে আবেদন করা হবে। 


keya