৯:১০ পিএম, ১৯ জুলাই ২০১৯, শুক্রবার | | ১৬ জ্বিলকদ ১৪৪০




সরিষাবাড়ীতে বন্ধুকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা, গ্রেফতার ৩

০৪ জুলাই ২০১৯, ০৪:০০ পিএম | নকিব


 তানভীর আহমেদ হীরা,জামালপুর প্রতিনিধি :জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে কবির হোসেন (২০) নামে এক বন্ধুর মোটরসাইকেল চুরি করার পর গলা কেটে হত্যার চেষ্টা করেছে তারই তিন বন্ধু। 

বৃহস্পতিবার ভোর রাতে সাতপোয়া ইউনিয়নের চর ছাতারিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঘাতক তিন বন্ধুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।  

 পুলিশ সুত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার ভোরে কবিরের তিন বন্ধু তার বাড়ীতে থাকতে যায়।  কবিরসহ সাথে থাকা বন্ধুরা মিলে রাতে নেশা করে। 

কবিরকে বেশি করে নেশা খাইয়ে ঘরে এক বন্ধুকে পাহাড়া রেখে বাকী দুই বন্ধু তার ব্যবহৃত মোটর সাইকেল চুরি করে সিরাজগঞ্জের ভেটুয়া ঘাটে থাকা তাদের অন্য সহোযোগীর কাছে রেখে আসে।  পরে তারা আবার কবিরের বাড়ীতে ফিরে আসে ।  পরে বিষয়টি জানা জানি হবে সেই ভয়ে ঘুমন্ত কবিরকে বেøট দিয়ে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা করে।  

কবিরের মা কল্পনা বেগম বলেন, সকালে কবিরকে ডাকতে গিয়ে দেখি তার পুরো শরির কাথা দিয়ে ঢাকা পাশে তিন বন্ধু শুয়ে আছে।  ডাকাডাকির এক পর্যায়ে সাঁড়া না দিলে আমি কবিরের গায়ে থাকা কাথা সড়ালে  গলা দিয়ে রক্ত বের হতে দেখি।  পড়ে আমি চিৎকার করলে লোকজন এসে কবিরকে হাসপাতালে নিয়ে যায় এবং ওই তিনজনকে আটকে রাখে।  পুলিশ এসে তাদের কে নিয়ে যায়।  সাতপোয়া ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশ বাচ্চু মিয়া বলেন, আমি ডিউটি করার জন্য যাচ্ছিলাম।  চিৎকার শুনে বাড়ীতে গিয়ে দেখি কবিরের গলা রক্তাক্ত হয়ে আছে।  আর ঘরে তিনটি ছেলে শুয়ে আছে।  পরে আমি বিষয়টি ইউপি চেয়ারম্যানকে জানাই ।  

এ ঘটনায় গ্রেফতারকৃত তিন জন হলো, চকবালিয়া গ্রামের জুরান আলীর ছেলে সাকিল (১৯), নগদা গ্রামের হাফিজুরের ছেলে সোহান (২০)  ধানাটা গ্রামের টিক্কা খানের ছেলে রবিন (১৯)।  

এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী থানার ওসি (তদন্ত) জোয়াহের হোসাইন জানান, এই ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।  চুরিকৃত মোটর সাইকেল উদ্ধারে অভিযান চলছে।  কবিরের গলা কাটার পড়ে রক্ত বের হতে দেখে তাদের মায়া লাগে তাই তাকে হত্যা করেনি বলে জানিয়েছেন ঘাতক রবিন।  এছাড়াও রবিন আন্তঃজেলা চোরাকারবারীর সদস্য বলে জানা গেছে।   তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে আরো বিস্তারিত জানা যাবে বলে জানিয়েছেন থানা পুলিশ ।  


keya