৪:৪১ পিএম, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, সোমবার | | ১৪ সফর ১৪৪১




লোহাগড়ায় স্কুলের দুর্নীতির প্রতিবাদ করায় একজনকে পিটিয়ে আহত

০৪ জুলাই ২০১৯, ০৬:০০ পিএম | নকিব


শরিফুল ইসলাম,নড়াইল প্রতিনিধি :নড়াইলের লোহাগড়ায় স্কুলের দুর্নীতির প্রতিবাদ করায় আব্দুল আহাদ মোল্লা (৪৮) নামে একজনকে পিটিয়ে আহত করেছে সন্ত্রাসীরা । 

আহতকে উদ্ধার করে লোহাগড়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে ।  আহত আহাদ মোল্লা মঙ্গলহাটা গ্রামের মোঃ মকছেদ মোল্লার ছেলে।  গত বুধবার দিবাগত রাত আনুমানিক ১০টার দিকে এ ঘটনা  ঘটে। 

আহাদ মোল্লা জানান গত রাতে তিনি লোহাগড়া থেকে মোটর সাইকেল যোগে  বাড়ি ফেরার পথে  বাড়ির কাছাকাছি পৌছালে পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা ৫/৬ জন সন্ত্রাসীরা তাকে কোন কিছু না বলে বেধড়ক মারপিট শুরু করে। 

এ সময়  তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসতে দেখে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।  গুরুতর আহত অবস্থা দেখে স্থানীয় লোকজন ও পরিবারে লোকেরা তাকে ওই রাতেই স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ ভর্তি করে।  এ বিষয়ে আহত আহাদ মোল্লা জানান,সম্প্রতি  মল্লিকপুর ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ইংরেজীতে অভিজ্ঞ একজন সহকারী প্রধান শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। 

কিন্তু মল্লিকপুর ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটিকে টাকার বিনিময়ে ম্যানেজ করে হাজী মোফাজ্জেল স্মরণী মাধ্যমিক বিদ্যাপীঠ এর শিপ্রা রানী বিশ^াস নামে একজন হিন্দু ধর্মের শিক্ষককে  ওই বিদ্যালযে সহকারী প্রধান শিক্ষক হিসেবে  নিয়োগ দেওয়া হয়।   তিনি  হাজী মোফাজ্জেল স্মরণী মাধ্যমিক বিদ্যাপীঠ এর প্রধান শিক্ষক এর স্বাক্ষর ও সীল জাল করে, অভিজ্ঞতার সনদ,পেশাগত সনদ ও পদত্যাগের সনদ তৈরী করে মল্লিকপুর ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ পান এবং সরকারী  বেতন ভাতার জন্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসে আবেদন করেন। 

আহত আহাদ মোল্লা এ দুর্নীতির মাধ্যমে ওই সহকারী প্রধান শিক্ষক নিয়োগের প্রতিবাদ করে সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ ও মানব বন্ধন করায় তাকে ওই সার্থান্বেষী মহল তাকে হত্যা করার উদ্দেশ্যে এ ঘটনা ঘটায়।  এ বিষয়ে মল্লিকপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মোস্তফা কামাল জানান, মল্লিকপুর ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দুর্নীতির প্রতিবাদ করায় আহাদকে মারপিট করে এ প্রতিবাদ দমিয়ে রাখা যাবে না এবং আহাদকে যারা আহত করেছে তাদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী জানান তিনি।  এ বিষয়ে লোহাগড়া থানার ওসি জানান, ঘটনাটি আমি শুনেছি।  অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।  


keya