৯:১৩ এএম, ২৫ আগস্ট ২০১৯, রোববার | | ২৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০




সৈয়্যদ আহমদ শাহ্ সিরিকোটি রহমাতুল্লাহি তা‘আলা আলায়হির ৬০তম সালানা ওরশ অনুষ্ঠিত

১৬ জুলাই ২০১৯, ১১:৩৬ এএম | নকিব


নকিব ছিদ্দিকী , চট্টগ্রাম :   অরাজনৈতিক দ্বীনি সংগঠন আনজুমান-এ রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্ট ও জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া কামিল মাদ্রাসার মত দেশখ্যাত দ্বীনি প্রতিষ্ঠানসমূহের প্রতিষ্ঠাতা।  আধ্যাত্মিক সাধক কুতুবুল আউলিয়া হযরতুলহাজ্ব আল্লামা হাফেজ সৈয়্যদ আহমদ শাহ্ সিরিকোটি রহমাতুল্লাহি তা‘আলা আলায়হির ৬০তম সালানা ওরশ মোবারক ধর্মীয় ভাবগম্ভীর পরিবেশে জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া কামিল মাদ্রাসায়, সোমবার সকাল থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত চট্টগ্রাম ষোলশহরস্থ আলমগীর খানকা-এ-কাদেরিয়া সৈয়্যদিয়া তৈয়্যবিয়ায় অনুষ্ঠিত হয়। 

আনজুমান-এ-রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্ট’র সেক্রেটারী জেনারেল জনাব আলহাজ্ব মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন তাঁর সারগর্ভ বক্তব্যে বলেন – ইসলাম শান্তির ধর্ম, এখানে জঙ্গীবাদের কোন স্থান নেই, আনজুমান ট্রাস্ট ও জামেয়া জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার সবসময়ই। 

জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়াসহ আনজুমান ট্রাস্ট পরিচালিত মাদরাসামূহ ‘কিসতিয়ে নূহ (আ)’ এর মতো বলে শাহেনশাহে সিরিকোটি (রহ.) ফরমান।  এ সমস্ত দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে শিক্ষাপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা দেশে-বিদেশে নবী ওলীর বিরুদ্ধে বাদীদের বিরুদ্ধে দ্বীনি জিহাদে অবতীর্ণ।  আমাদের সকলের ওপর এ মহান ওলীর নেগাহ করম রযেছে বিধায় দেশ-বিদেশে আনজুমান, জামেয়া, গাউসিয়া কমিটির কার্যক্রম বিস্তৃত ও প্রশংসিত হয়ে আসছে। 

যারা জামেয়া আনজুমান, গাউসিয়া কমিটির সাথে সম্পৃক্ত থেকে খেদমত আনজাম দেবেন তাঁরা দুনিয়া ও আখিরাতে নাজাতপ্রাপ্ত হবেন ইনশাআল্লাহ্।  উক্ত সালানা ওরস মোবারক মাহফিলে গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশ’র চেয়ারম্যান আলহাজ্ব পেয়ার মুহাম্মদ সকলকে শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। 

সালানা ওরস মোবারক মাহফিলে বক্তারা বলেন- ইসলাম শান্তির ধর্ম।  এ শান্তির প্রকৃত আবেদন রয়েছে জাহেরি ও বাতেনি ইলমের মধ্যে।  সৈয়দ আহমদ সিরিকোটি (র.) ১৯৫৪ সালে বার আউলিয়ার পুন্যভুমি চট্টগ্রামে জাহেরি ও বাতেনি ইলমের মরকজ হিসাবে প্রতিষ্ঠা করেছেন ষোলশহর জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়াকে।  এ মাদ্রাসা দীর্ঘ ছয়দশকের অধিক সময় ধরে ইসলামের যে সঠিক শিক্ষা দিয়ে আসছে, তা এককথায় অনন্য।  এ মাদ্রাসাকে ঘিরে আজ যে আধ্যাত্মিকতার চর্চা হচ্ছে তা থেকে শুধু ইসলামের সঠিক রূপরেখা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আতেরই প্রচার হচ্ছেনা বরং সম্প্রতি সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে এক বিপ্লব সংগঠিত করেছে এ মাদ্রাসার শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও কর্তৃপক্ষ। 

সালানা ওরসে বক্তারা আরো বলেন, সকল বাতিল ও ভ্রান্ত মতবাদীদের উত্থান হয়েছে খারেজি থেকে।  যারা ইসলামে সর্বপ্রথম জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসের সৃষ্টি করেছে খারেজিরা ।  এরপর রাফেজি, শিয়া, জবরিয়া, কদরিয়া, মোতাজিলা, ওহাবি, মওদুদী, কাদিয়ানি ও আহলে হাদিস একই বৃত্তে গাঁথা।  এখন আহলে হাদিসরাই খারেজিদেও আদর্শে আরো বেশি উগ্রতার আশ্রয় নিয়ে ইহুদীদের দর্শন বাস্তবায়নে তৎপর। 

আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত খারেজিদের উত্থানের যুগ থেকেই অপশক্তি, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সত্যিকার শান্তির ইসলাম ও রাসূল (দ.) এর মহান আদর্শ প্রতিষ্ঠায় সংগ্রাম করে আসছে।  যে সংগ্রামের সিপাহিসালার ও সহযোদ্ধারা ছিলেন, সাহাবায়েকেরাম, আহলে বায়তে রাসূল, আউলিয়ায়ে কেরাম-সুফি সাধক ও হক্কানি লোমায়ে কেরাম।  জামেয়া সেই সংগ্রামেরই অংশ।  আর এটিই সম্প্রতি ঘটনাপ্রবাহে হুজুরের ভবিষ্যৎ বাণি অনুযায়ী নূহ আলাইহিস সালামের কিস্তিতে পরিনত হয়েছে।  এখানে যারা আশ্রয় নিবেন তারই সঠিক পথে থাকবেন। 

মহান আধ্যাত্মিক সাধক সুন্নীয়তের প্রাণ প্রতিষ্ঠা পুরুষ কুতুবুল আউলিয়া হযরতুলহাজ¦ আল্লামা হাফেজ সৈয়্যদ আহমদ শাহ্ সিরিকোটি (রহ.) এ দেশে শুভাগমন না হলে এবং জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়ার মতো ঐতিহাসিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠিত না হলে এ দেশের মানুষ নবী-ওলী প্রেমিক না হয়ে গোমরাহীর, বেড়াজালে আবদ্ধ হয়ে ঈমানহারা হতেন।  তাঁর মতো একজন নবী বংশধরকে পাঠিয়ে আল্লাহ্-রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাদের ওপর এহ্সান করেছেন তার কোন তুলনা হয় না।  পরবর্তীতে তাঁরই ছাহেবজাদা কুতুবুল এরশাদ, গাউসে জমান হযরতুল আল্লামা আলহাজ্ব হাফেজ ক্বারী সৈয়্যদ মুহাম্মদ তৈয়্যব শাহ্ (রহ.) দ্বীন-মাযহাব মিল্লাতের খেদমত আঞ্জাম দিয়েছেন এবং বর্তমানে আওলাদে রাসূল, গাউসে জমান হযরতুল আল্লামা আলহাজ্ব সৈয়্যদ মুহাম্মদ তাহের শাহ্ মাদ্দাজিল্লুহুল আলী জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়ার আদলে বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে শত শত দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, খানকাহ্, মসজিদ প্রতিষ্ঠিত হওয়ায় বাতিলপন্থীদের বিরুদ্ধে আল্লাহ্-রাসূল, আউলিয়ায়ে কেরামের পক্ষ ধরে জেহাদে অবতীর্ণ হতে পারছে এ দেশের সুন্নী জনতা।  দ্বীন ইসলামের মূলধারা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের একনিষ্ঠ খাদেম হয়ে দেশ-বিদেশে জামেয়ার শিক্ষার্থীরা এক দ্বীনি জিহাদে অবতীর্ণ।  আমরা যদি আওলাদে রসূলগণের পিছনে ঐক্যবদ্ধ হয়ে ইমান আক্বীদা রক্ষার্থে তাঁদেরই নির্দেশিত পথে চলতে পারি, তাহলেই প্রকৃত ইসলামী জীবন ব্যবস্থার অনুসারী হতে দ্বীন-দুনিয়া উভয় জাহানের কামিয়াবী হাসিল করতে সক্ষম হবো।  আল্লাহ ্আমাদের এ মহান সাধকগণের পদাঙ্ক অনুসরণ করার তৌফিক দিন।  আমিন। 

এতে বক্তা হিসেবে ছিলেন-  সাবেক অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) আলহাজ্ব হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ সোলায়মান আনসারী, ওবায়দুল হক নঈমী প্রমুখ।  

সালানা ওরস মোবারক উপলক্ষে দিনব্যাপী কর্মসূচীর মধ্যে ছিল- বা’দ ফজর খত্মে কোরআন মাজীদ, খত্মে বোখারী শরীফ, খত্মে মজমুয়ায়ে সালাওয়াতে রাসুল(দঃ), আসরের নামাজে পর  পবিত্র গেয়ারবী শরীফ।   বা‘দ নামাজে এশায় তবারুক বিতরণ এবং পরিশেষে, বাংলাদেশসহ সমগ্র মুসলিম জাহানের শান্তি কামনা করে দো’য়া ও মুনাজাত পরিচালনা করেন শেরে মিল্লাত মুফতি আলহাজ¦ মুহাম্মদ ওবাইদুল হক নঈমী আখিরী মুনাজাত পরিচালনা করেন । 


keya