১০:৫১ এএম, ২২ আগস্ট ২০১৯, বৃহস্পতিবার | | ২০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০




জামালপুর হাসপাতালে রক্ত পরিক্ষার সেল কাউন্টার নষ্ট ডেঙ্গু রোগী বিপাকে

০৭ আগস্ট ২০১৯, ০১:০৩ পিএম | নকিব


তানভীর আহমেদ হীরা, জামালপুর প্রতিনিধি: জামালপুরে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলছে ,রক্ত পরিক্ষার সেল কাউন্টার মেশিন নষ্ট। 

রক্ত পরিক্ষার সংকটে জেনারেল হাসপাতাল, ভুগান্তিতে পড়েছে রোগী ও স্বজনরা। 

হাসপাতাল কর্র্তৃপক্ষ বলছে রোগীর অতিরিক্ত চাপের কারনে সেল কাউন্টার মেশিনটি সঠিক কাজ করছে না । জামালপুরে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলছে। 

গত ২৪ ঘন্টায় ৭জন ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বেড়ে জেনারেল হাসপাতালে গত২২জুলাই থেকে মোট ৮৮ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।  হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ১৪ জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য অন্যত্র স্থানান্তর ও ৩৩জনকে চিকিৎস শেষে  ছুটি দেওয়া হয়েছে। 

আর ৯জন সেচ্ছায় ছুটি নিয়ে চলে গেছে  এখন পর্যন্ত ৩২জনকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এদিকে হাসপাতালে প্রতিনিয়তই জ্বরের রোগীদের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। 

ডেঙ্গু রক্ত পরিক্ষার মেশিন নষ্ট হওয়ার কারনে রোগীরা রক্তের প্ল্যাটিলেট পরিক্ষার জন্য বেসরকারি ক্লিনিকে ভিড় জমাচ্ছে।  হাসপাতালে  ডেঙ্গু রোগের চিকিৎসা  নিচ্ছেন অধিকাংশ ঢাকা থেকে ফেরত আসা  রোগী।  এখন পর্যন্ত জামালপুরের স্থানীয় কোন রোগী ভর্তির খবর পাওয়া যায়নি । 

হাসপাতালে রোগীর স্বজনেরা বলেন, জেনারেল হাসপাতালে রক্ত পরিক্ষা করতে গেলে মেশিন নষ্ট পরিক্ষা হবে না বলে এবং সেই সাথে তারা খারাপ ব্যবহার করে ।  

 রোগীরা জানান. ডেঙ্গুর রক্ত পরিক্ষার জন্য অসুস্থ্য শরির নিয়ে প্রতিদিন বাহিরের ক্লিনিক থেকে  ঘন্টার পর ঘন্টা দাড়িঁয়ে রক্ত পরিক্ষা করে  নিয়ে আসতে হচ্ছে, সেটা আমারদের জন্য খুই কষ্ট কর । 

এ ব্যাপারে মেডিকেল টেকনোলজিষ্ট প্যাথলজি বিভাগের আমিনুল হক বলেন, ডেঙ্গু রক্ত পরিক্ষার জন্য  সমস্যা নেই  আমরা প্রতিদিন ২৫-৩০টি পরিক্ষা করছি।  শুধু  রক্তের প্ল্যাটিলেট পরিক্ষার মেশিন নষ্ট হওয়ার কারনে  রক্তের সেল কাউন্ট করা যাচ্ছে না । তবে মেশিনটি দ্রæত সময়ের মধ্যে মেরামত  করার কাজ চলছে । সেল কাউন্টার মেশিনটি ঠিক হলে আর কোন সমস্যা হবে না । 

মেডিসিন কনসালটেন্ট ডা: মো:মোশাহিদুল ইসলাম সুমন জানান, জামালপুর জেনারেল  হাসপাতালে সকল ডেঙ্গু রোগী ভাল আছে তাদের নিয়মিত চিকিৎসা ও ওষুধ দেওয়া হচ্ছে। অনেকের জ্বর কমতে শুরু করেছে , কারো কারো প্ল্যাটিলেট বাড়তে শুরু করেছে ।  তবে এখন পর্যন্ত জামালপুরের স্থায়ী বাসিন্দার ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়নি ।  এখানে ভর্তি হওয়া সকল রোগী ঢাকা থেকে আসা ।