১২:০২ পিএম, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, রোববার | | ১৫ মুহররম ১৪৪১




ময়মনসিংহের ডিবি'র ওসি শাহ কামালের ১ বছরপূর্তি

০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০১:৪৩ পিএম | নকিব


মিজানুর রহমান,ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহ জেলার চাঞ্চল্যকর ১০ টি হত্যা মামলা, ২ টি খুনসহ ডাকাতি, ১ টি অপহরণ করে হত্যা, ১ টি বিদ্যুত তার চুরি, ১ টি ডিজিটাল মামলাসহ ১৫ টি গুরুত্বপূর্ন মামলার রহস্য উদঘাটন করেছেন। 

সেই সাথে বিপুল পরিমান মাদক ও আগ্নেয়া অস্ত্র  উদ্ধার করেছেন। 

ময়মনসিংহে জেলা গোয়েন্দা সংস্থার ওসি শাহ কামাল পিপিএম (বার) যোগদানের সফলতার এক বছর পূর্তি।  গত বছর ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে তিনি ময়মনসিংহ জেলায় যোগদান করেন। 

গত এক বছরে জাতীয় নির্বাচন, উপজেলা নির্বাচন, সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন, ইউপি নির্বাচনে বিভিন্ন এলাকায় ওসি শাহ কামালের নেতৃত্বে সফলভাবে দায়িত্ব পালন করেছে জেলা গোয়েন্দা সংস্থা। 

চাঞ্চল্যকর রাসেল হত্যা, মুক্তাগাছা মাথা বিহীন ভ্যান চালক হত্যা, গফরগাঁও স্কুল পড়–য়া ছাত্র হত্যা, ফুলবাড়ীয়া হাফেজ হত্যা, ত্রিশালে ধান ব্যবসায়ী হত্যা, পাগলা’র অটোবাইক চালক হত্যা, গৌরীপুরে জনি হত্যা, মুক্তাগাছা পল্লী বিদ্যুতের তার চুরি, গুজব রটনাকারী, ঈশ^রগঞ্জের ত্রিপল মার্ডারের আসামী গ্রেফতার সহ মামলার রহস্য উদঘাটনে সফলতা দেখিয়াছেন জেলার গোয়েন্দা সংস্থার ওসি ডিবি শাহ কামাল। 

তিনি গত এক বছরে ৫শ ৪৬টি মাদক মামলা করে সেই সাথে ৯শ ৮৪ জনকে গ্রেফতার করেন।  ১৪টি অস্ত্র উদ্ধার ও সংশ্লিষ্টদের গ্রেফতার করেন। 

৪৪ হাজার ৫শ ৬৩ পিস ইয়াবা, ৭ হাজার ১শ ১১ গ্রাম হেরোইন, ১শ ১১ কেজি গাঁজা, ৮৪ বোতল ও ৬৫৯ লিটার মদ, ৩শ ৫৭ বোতল ফেনসিডিল, ৬শ ৬৪টি ইনজেশন, ৮০টি বিয়ার ক্যান, পাইপগান ৯টি, এলজি ১টি, পিস্তল ২টি, রিভলবার ২টি, গুলি ৪ রাউন্ড ও কার্তুজ ১১টি, মোবাইল ১শ ১৮টি, নগদ টাকা ১ লাখ ৭৮ হাজার ৪শ ৬০ টাকা, ডলার ৮৬টি, মোটর সাইকেল ২১টি, প্রাইভেটকার ২টি, দেশিয় অস্ত্র ২৬টি উদ্ধার করে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদেরকে গ্রেফতার করেন।  এছাড়া পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে ১৩ জন নিহত হয়েছে। 

সূত্র জানিয়েছে, ঈশ^রগঞ্জ মামলা নং- ২৭ তারিখ ২৯-১২-১৭ইং ধারা ৩৯৫/৩৯৭, কোতোয়ালী মডেল থানার মামলা নং- ২ তারিখ ০৬-০৪-১৯ইং ধারা ৩০২/৩৪, তারাকান্দা থানার মামলা নং-১৭ তারিখ ২৫-০১-১৯ইং ধারা ৩৯৪/৩০২/৩৪, গৌরীপুর থানা মামলা নং-২১ তারিখ ১৯-০৫-১৯ইং ধারা ৩০২/৩৪/১১৪, মুক্তাগাছা থানা মামলা নং- ০১ তারিখ ০২-০৪-১৯ইং ধারা ৩০২/২০১/৩৪, পাগলা থানার মামলা নং-০৭ তারিখ ০৯-০৪-১৯ইং ধারা ১৪৮/৩৪১/৩২৫/৩২৬/৩০২/৩০৭/১১৪, মুক্তাগাছা থানা মামলা নং-৭ (৩) ১৯ ধারা ৪১৩, কোতোয়ালী মডেল থানা মামলা নং-৪৪ তারিখ ১৩-০১-১৯ইং ধারা-৩৯৫/৩৯৭, গফরগাঁও থানা মামলা নং-১৬ তারিখ ৩০-০৮-১৮ইং ধারা- ৩০২/২০১/৩৪, কোতোয়ালী থানা মামলা নং-৫১ তারিখ ১৪-০৫-১৯ইং ধারা ১৪৩/৩০২/৩০২/১১৪/৩৪, ফুলবাড়ীয়া থানা মামলা নং-০২ তারিখ ০৮-০৩-১৯ ইং ধারা-৩০২/২০১/৩৪, ত্রিশাল থানা মামলা নং-৪২ তারিখ ২৭-১২-১৮ইং ধারা-৩৬৪/৩৪, পাগলা থানা মামলা নং-১৬ তারিখ ২৭-০৭-১৯ইং ধারা-৩৯৪/৩০২/২০১/৩৪, ঈশ^রগঞ্জ থানা মামলা নং-১৯ তারিখ ১৬-০৮-১৯ ইং ধারা ১৪৩/১৪৭/১৪৮/১৪৯/৪৪৭/৩২৪/৩২৫/৩২৬/৩০৭/৩০২/১১৪ নেপাল কোড, কোতোয়ালী থানা মামলা নং-১৬ তারিখ ০৩-০৮-১৯ইং ধারা- ২০১৮ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৮(২)/৩১(২) সফল ভাবে দায়িত্ব পালন করে আসামী গ্রেফতার ও রহস্য উদঘাটন করেন। 

ময়মনসিংহে অপরাধ দমনে সৃষ্টি করেছেন অনেক রেকর্ড।  তিনি যখন ময়মনসিংহে যোগদান করেন, তখন ছিল জেলায় ক্রান্তিকাল।  পুলিশ সুপার শাহ মোঃ আবিদ হোসেনের নির্দেশনায় এই চৌকস কর্মকর্তা তার দায়িত্বশীল কর্মনিষ্ঠা, নেতৃত্বের গুণে বার বার সাফল্যের নজির রেখে অপরাধ দমনে ৯ বার ময়মনসিংহ রেঞ্জে শীর্ষ স্থান দখল করে রেখেছেন।  তিনি ময়মনসিংহে শতভাগ সাফল্যের সহিত এক বছর পার করেছেন এবং সাফল্যের দৃষ্টান্ত রেখে চলেছেন। ওসি ডিবি শাহ কামাল অপরাধ দমনে খুবই কঠোর।  ছিনতাইকারী, মাদক ব্যবসায়ী, অস্ত্রবাজসহ মোট ১৪ জন সন্ত্রাসী বন্দুক যুদ্ধে নিহত হয়েছে।  চাঞ্চল্যকর পৃথক পৃথক গণধর্ষণ মামলার দুই আসামী পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে নিহত হয়েছে। 

এসপি শাহ আবিদ এর নির্দেশনায়, খুনের অজ্ঞাত নামা খুনিদের সনাক্ত করে গ্রেফতার, আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার, বিপুল পরিমান মাদক উদ্ধার, সেই সাথে মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতার, চুরি ছিনতাই প্রতিরোধে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখে চলেছেন।  তিনি ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা সংস্থাকে কাজে লাগিয়ে জেলায় সংঘটিত কয়েকটি চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটনে ও শীর্ষ অপরাধীদের দমনে বিশেষ ভূমিকা রেখেছেন। 

অপরাধ দমনে সাধারণ জনগণের আশার প্রতিফলন ঘটায় তিনি বহুবার আলোচিত ও প্রশংসিত হয়েছেন


keya