২:৩২ পিএম, ২১ অক্টোবর ২০১৯, সোমবার | | ২১ সফর ১৪৪১




মোরেলগঞ্জে সৎ মায়ের হাতে শিশুপুত্র নিহত ॥ লাশ উদ্ধার, আটক ১

১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:১৫ পিএম | নকিব


এম.পলাশ শরীফ, বাগেরহাট প্রতিনিধি : বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে সিয়াম(৭) নামের এক মাদ্রসা ছাত্রকে হত্যা করেছে তারই সৎ মা। 

নিখোঁজের দু’দিন পর ওই শিশুর নিজ বাড়ি থেকে থানা পুলিশ মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে লাশটি উদ্ধার করে।  এ ঘটনায় সৎ মা ফেরদৌসি বেগম(২৮)কে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

পারিবারিক সূত্রে জানাগেছে, বদনিভাঙ্গা গ্রামের মিরাজ মোল্লার প্রথম সংসারের ছেলে সিয়াম  সে বিএস রহমাতিয়া দাখিল মাদ্রাসার ছাত্র গত রবিবার দুপুর থেকে নিখোঁজ ছিল। 

সিয়ামকে হত্যা করে লাশ ঘরের সামনে একটি ডোবার মধ্যে লুকিয়ে রেখেছিল তার সৎ মা ফেরদৌসী বেগম(২২) বলে শিশুর পিতা মিরাজ ও তার বড় বোন নূরজাহান জানান, ঘটনাদিন দুপুরে সিয়াম মাদ্রাসা থেকে এসে দাদী ও মা একত্রে খাবার খেয়েছে। 

পরবর্তীতে তার দাদী সালেহা বেগম ছোট মেয়ের বাড়িতে পাঠামারা গ্রামে যান।  এ সময় সিয়াম তার দাদীর সাথে না যেতে পেরে কান্নাকাটি করে।  এক প্রসঙ্গে সৎ মা ফেরদৌসি ঘরে থাকা পাথরের পুতা দিয়ে সিয়ামের পিঠে ও মাথায় আঘাত করে। 

শিশু সিয়াম কান্নার শব্দ বাহিরে যেতে না পারে এ জন্য তার পিতার গেঞ্জি মুখের মধ্যে দিয়ে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করে।  পরবর্তীতে ঘরের সামনে টয়লেটের পাশে ময়লা আবজনা একটি গর্তে তার লাশ ডেকে রাখে। 

ওই শিশুপুত্র পিতা মিরাজ বাড়িতে এসে স্ত্রীর প্রতি সন্দেও হলে মঙ্গলবার তার বোনের ছেলে টয়লেটে গিয়ে প্রথমে লাশটি দেখতে পায়।  পরে থানা পুলিশকে সংবাদ দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ও সৎ মাকে গ্রেফতার করে। 

এ ঘটনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোরেলগঞ্জ সার্কেল মো. রিয়াজুল ইসলাম থানা অফিসার ইনচার্জ কেএম আজিজুল ইসলাম, চেয়ারম্যান মো. আকরামুজ্জামান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।  এদিকে সকাল থেকেই ওই শিশুপুত্র সিয়ামের লাশ পাওয়ার পরপরই ওই বাড়িতে স্থানীয়দের ভীড় স্বজনদের আহাজারি কান্নায় পরিবেশ ভারী হয়ে ওঠে।  এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।   

এ সম্পর্কে থানার ওসি কেএম আজিজুল ইসলাম বলেন, শিশু সিয়ামকে রবিবার তার সৎ মা হত্যা করে লাশ ডোবার মধ্যে ফেলে রাখে।  সিয়ামের খুনি সৎ মা ফেরদৌসি বেগমকে গ্রেফতার করা হয়েছে।