৮:১১ এএম, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, সোমবার | | ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১




ময়মনসিংহে পেটের ভিতরে ২ হাজার পিচ ইয়াবাসহ ১ নারী আটক

১২ অক্টোবর ২০১৯, ০২:১৮ পিএম | নকিব


মিজানুর রহমান, ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) শুক্রবার মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে এই প্রথমবারের মত পেটের ভিতর পুটলা বানিয়ে ইয়াবা বহনকালে ২ হাজার পিচ ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার করেছে। 

তার আয়শা সিদ্দিকা ওরফে সামি।  গ্রেফতারকৃত ইয়াবা ব্যবসায়ীর বাড়ি কক্সবাজারের টেকনাফে। 

তার পিতার নাম মৃত শামসুল হক।  পেটের মধ্যে ২ হাজার পিচ ইয়াবা বহন করার খবর পুলিশের বিভিন্ন মহলসহ শহরে ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপক চাঞ্চলের সৃষ্টি হয়। 

ডিবির ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানান, পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেনের নির্দেশে ডিবি পুলিশ নিয়মিত মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে আসছে। 

এরই অংশ হিসাবে শুক্রবার গোপন সংবাদ পেয়ে দিঘারকান্দায় অভিযান পরিচালনা করা হয়।  এর আগেই ডিবি পুলিশ খবর পায়, কক্সবাজারের এক নারী মাদক ব্যবসায়ী তার পেটের ভিতরে ইয়াবা বহন করে ময়মনসিংহে বিক্রি করতে এসেছে।  ঐ খবরের ভিত্তিতে ডিবির এসআই এসআই মোঃ মনিরুজ্জামান, এএসআই মোঃ মঞ্জুরুল আলম সংগীয় অফিসার ফোর্সসহ বিকালে দিঘারাকান্দা বাইপাসা মোড় রেজা সিএনজি ফিলিং ষ্টেশনের সামনে থেকে নারী মাদক ব্যবসায়ী আয়শা সিদ্দকা ওরফে সামিকে চ্যালেঞ্জ করে এবং তাকে আটক করে।  পরে তাকে ডিবি অফিসে নিয়ে এসে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদকালে এক পর্যায়ে সে পুলিশকে জানায় তার পেটের ভিতর ২ হাজার পিচ ইয়াবা রয়েছে। 

যা পৃথক ৪০টি করে পুটলা বানিয়ে অভিনব কায়দায় গিলে ফেলা হয় এবং পেটের মধ্যেই রয়েছে।  এক পর্যায়ে ডিবি পুলিশ ঐ নারীকে পায়খানা তরল হওয়ার জন্য ওষুধ খাওয়ালে দীর্ঘ সময় পর সে তরল পায়খানা করে। 

এ সময় পর্যায়ক্রমে পায়খানার সাথে পর পর ৪০িিট পুটলা বের হয়ে আসে।  পরে ডিবি পুলিশ ঐ পুটলাগুলো খুলে দেখতে পায় প্রতিটি পুটলাতে ৫০টি করে ইয়াবা রয়েছে। 

ডিবির ওসি শাহ কামাল আকন্দ আরো বলেন, এর আগে ডিবি পুলিশ জুতার মধ্যে এবং মোবাইলের চার্জারের মধ্যে বহনকালে কয়েক হাজার পিচ ইয়াবা উদ্ধার করে।