১:১০ পিএম, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, সোমবার | | ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১




শ্রীপুরে "ভুয়া"ভেবে পুলিশকে মারধরের ঘটনায় ইউপি সদস্য শ্রীঘরে!

১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০৪:৪৮ পিএম | নকিব


আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর(গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ গাজীপুরের শ্রীপুরে "ভুয়া পুলিশ" মনে করে পুলিশ সদস্যদেরকে মারধরের ঘটনায় এক ইউপি সদস্যসহ ৩জনকে আটক করেছে থানা পুলিশ।  

গত রাতে উপজেলার মাওনা ইউনিয়নের কপাটিয়াপাড়া গ্রামের চকপাড়া মেডিকেল মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।  

জানা যায়, গ্রেফতারি পরোয়ানাভূক্ত আসামীর খোঁজে  চকপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির দুই সদস্য সাদা পোশাকে ওই এলাকায় যায়।  এসময় তাদের সাথে ইউপি সদস্য ও তার সমর্থকদের কথা কটাকাটির একপর্যায়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।  এতে চকপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির দুই পুলিশ সদস্য আহত হয় বলে জানায় পুলিশ। 

এ ঘটনায় জড়িত থাকায় মাওনা ইউপি সদস্যসহ তিনজনকে আটক করে পুলিশ। 

আটককৃতরা হলো,উপজেলার মাওনা ইউনিয়নের কপাটিয়াপাড়া গ্রামের ইন্তাজ আলীর ছেলে ইউপি সদস্য মতিউর রহমানকে (৫২), আহাম্মদ আলীর ছেলে আল আমিন (৩০) ও একই গ্রামের মৃত শমসের আলীর ছেলে হুমায়ুন (৩০)। 

মাওনা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (এসআই) মেনহাজ উদ্দিন জানান, গতরাত সাড়ে ৭টার দিকে কনস্টেবল সবুজ ও নাইমুর সাদা পোশাকে গ্রেফতারি পরোয়ানা ভুক্ত আসামীদের খোঁজে মাওনা ফাঁড়ির কপাটিয়াপাড়া গ্রামের চকপাড়া মেডিকেল মোড়ে জৈনক মজিবর রহমানের দোকানের সামনে যায়।  এসময় ইউপি সদস্য মতিউর রহমানসহ আরো কয়েকজন মিলে কনস্টেবল সবুজ ও নাইমুরকে "নকল পুলিশ" সদস্য মনে করে এলোপাতাড়ি মারধর করে।  পরে খবর পেয়ে পুলিশের অন্যান্য সদস্যরা তাদের দু’জনকে উদ্ধার করে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়। 

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লিয়াকত আলী জানান, পুলিশের উপর হামলার ঘটনায় চিহ্নিত ৩জনসহ অজ্ঞাত কয়েকজনের নামে একটি মামলা হয়েছে।  ঘটনার সাথে সরাসরি জড়িত ৩জনে আটক করা হয়েছে।