৪:৩৩ পিএম, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার | | ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১




সা'দ পন্থীদের ইজতেমা ঘিরে শ্রীপুরে উত্তেজনা চরমে,পুলিশ মোতায়েন!

০৫ নভেম্বর ২০১৯, ১০:১০ এএম | নকিব


আলফাজ সরকার আকাশ শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি : গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলায় সা'দ পন্থীদের ইজতেমাকে ঘিরে ও ইজতেমা ঠেকানো নিয়ে জোবায়ের পন্থী এবং সা'দ পন্থীদের মাঝে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। 

এদিকে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে উপজেলার মারকাজ মসজিদসহ বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করেছে প্রশাসন। 

জানা যায়, আগামী ৭, ৮ ও ৯ নভেম্বর পৌর এলাকার ২নং ওয়ার্ড শ্রীপুর আমতলা মন্ডলবাড়ী ও মোল্লাবাড়ি সংলগ্ন জিল্লীর মাঠে গাজীপুর জেলার এ ইজতেমার আয়োজন করা হয়।  

শ্রীপুর উপজেলার জোবায়ের পন্থীর মৌলভী মাহমুদুল হাসান সজল জানান,যেহেতু গাজীপুরেই জানুয়ারি মাসে বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।  এখন এ ধরনের ইজতেমা হলে ওই বিশ্ব ইজতেমার গুরুত্ব কমে যায়।  তাই আমরা এ ইজতেমা না হওয়ার জন্য প্রশাসনের কাছে অনুরোধ করেছিলাম।  

ইসলাম প্রচারে বাঁধা কোথায় এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, মাওলানা সা'দ সাহেব কোরআন হাদিস বিরোধী কিছু অপব্যাখ্যা করেছেন, যেগুলো আমাদের ওলামায়ে কেরাম সমর্থন করে না।  মওদুদী বিবাদের আকিদা, নবীদের ভুল, সাহাবী একরামের ভুল, এগুলো আমাদের হক পন্থী ওলামায়ে কেরাম মানে না।  জামায়াত পন্থী মওদুদী সাহেবের কিছু আকীদা আছে এগুলো যাতে শ্রীপুরবাসীর মধ্যে না প্রবেশ করে তাই আমরা প্রশাসনকে অনুরোধ করেছিলাম।  

সা'দ পন্থীর মুরুব্বী ধারার মাওলানা আবুল কালাম আজাদ জানান, আগামী ১৭, ১৮ ও ১৯ জানুয়ারী বিশ্ব ইজতেমাকে  সম্পন্ন করার জন্য দেশের বিভিন্ন স্থানে এ ধরনের ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে।  এই ইজতেমা থেকে জামাত বের হয়ে বড় ইজতেমার জন্য কাজ করবে।  সকল ধর্মপ্রাণ মুসুল্লি যাতে সুষ্ঠু-সুন্দর ভাবে ইজতেমা সম্পন্ন করতে পারে তার পূর্ণ ব্যবস্থা করা হচ্ছে।  ইতিমধ্যে ইজতেমার সকল আয়োজনও সম্পন্ন করা হয়েছে।  এখন শেষ মুহুর্তে প্রস্তুতি চলছে।  আর যাবতীয় কাজ প্রশাসনের অনুমতি ও সহযোগিতা নিয়েই করা হয়েছে ।  

বিভক্তি সম্পর্কে তিনি জানান,  মাওলানা জোবায়ের পন্থী অনুসারীর কিছু মুসুল্লী ভাই যারা মূল ধারা থেকে সরে গেছেন তারা গিয়ে প্রশাসনের কাছে দাবি করেছেন আমাদের ইজতেমার অনুমতি না দেয়ার জন্য।  আমরা আশা করি আমাদের ইজতেমা সম্পন্ন করার জন্য সকলের সহযোগিতা পাবো।  

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লিয়াকত আলী জানান,আইন শৃঙ্খলার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে মোড়ে মোড়ে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।  বর্তমানে পরিস্থিতি সম্পুর্নই স্বাভাবিক।  এখনো পর্যন্ত কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। 

গাজীপুর পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার পিপিএম বার জানান, একে অন্যের প্রতিবন্ধক না হয়ে দুটি পক্ষকেই ইজতেমা করতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।  এক্ষেত্রে উভয় পক্ষকেই পুলিশ নিরাত্তা দিয়ে সর্বোচ্চ সহযোগিতা করবে বলেও জানান তিনি।