২:৩৫ এএম, ৬ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার | | ৮ রবিউস সানি ১৪৪১




জামালপুরে ধর্ষন ও হত্যা অভিযোগ, গৃহবধু হাসপাতালে ভর্তি আটক-১

১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০৪:১২ পিএম | নকিব


তানভীর আহমেদ হীরা, জামালপুর:  জামালপুরে এক গৃহবধুকে গণধর্ষন ও তার স্বামীকে হত্যা করে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে আত্মহত্যা বলে চালানোর চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। 

সোমবার (১৮অক্টোবর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে নির্যাতনের শিকার ওই গৃহবধু জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।  এ ঘটনায় পুলিশ একটি অপমৃত্যুর মামলা করলেও, ধর্ষনের মামলা নেয়নি বলে অভিযোগ নির্যাতিতার। 

জামালপুর সদর উপজেলার ১০নং শ্রীপুর ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর গ্রামে ধর্ষনের শিকার ওই গৃহবধু জানায়, শুক্রবার(১৫নভেম্বর) রাত ৮টার দিকে ঘর থেকে বাইরে বের হলে প্রতিবেশী ছানোয়ার, শাওন ও রফিজ উদ্দিন তাকে বাড়ির সিমানা থেকে ধরে নিয়ে যায়। 

পরে ওই গৃহবধূকে ছানোয়ারের বাড়ির পেছনে একটি জঙ্গলে নিয়ে ধর্ষন করে এবং গাছের সাথে বেঁধে মারধর করে।  এরপর ওই গৃহবধুকে ছানোয়ারের বাড়িতে আটকে রাখে।  খবর পেয়ে তার স্বামী খলিলুর রহমান ঘটনাস্থলে এসে প্রতিবাদ করতে গেলে তাকে মারধর করে হত্যা করে। পরে নিহত কাঠ মিস্ত্রি খলিলুর রহমানের লাশ তার বাড়ির পাশে কাঠাঁল গাছে ঝুলিয়ে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে।  পরদিন সকালে পুলিশ গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জামালপুর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায় এবং একটি অপমৃত্যু মামলা করে।  তবে হত্যাকান্ড এবং ধর্ষনের বিষয়ে পুলিশ কোন মামলা নেয়নি বলে অভিযোগ করেন নির্যাতিতা ওই গৃহবধু ও নিহতের বাবা ইমান আলী।  ওই গৃহবধু বর্তমানে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। 

পরিবারের পক্ষ থেকে জানান, পুলিশের কাছে বারবার ধর্ষনের কথা বললেও পুলিশ

আমাদের কথা পাত্তা দেয়নী বরং নিহত খলিলকে ময়নাতদন্ত করে অপমৃত্যু মামলা করে

চালিয়ে দেয়। এদিকে তিন দিন গত হয়ে গেলে ধর্ষিতার অবস্থা অবনতি হলে আমরা

নিজেরাই হাসপাতালে এনে ভর্তি করি।  জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা: হাসানুল বারী শিশির কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, প্রাথমিক পর্যাবেক্ষনে ধর্ষনের নমুনা পাওয়া যাচ্ছে ।  তবে তাকে গাইনি বিশেজ্ঞ পরিক্ষা করলে চুড়ান্ত রির্পোট পাওয়া যাবে । 

জামালপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: সালেমুজ্জামান জানান, ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলে এটি হত্যা না আত্মহত্যা তা জানা যাবে। ধর্ষনের ব্যাপারে কোন অভিযোগ করা হয়নি হলে আমরা ব্যবস্থা নিবো।  এ কথা শোনা পর সোমবার দিবাগত রাতে থানায় এসে নির্যাতিতা একটি ধর্ষন মামলা দায়ের করলে মঙ্গলবার সকালে আব্দুল হকের ছেলে শাওন(২৫) কে আটক করে বলে জানিয়েছেন । 


keya