৬:১৪ এএম, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, শনিবার | | ১ সফর ১৪৪২




অফিসে পাঁচ মিনিট বিলম্ব মানে ১৬ কোটি মানুষের সঙ্গে প্রতারণা : মন্ত্রিপরিষদ সচিব

০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৬:২৫ পিএম | নকিব


এসএনএন২৪.কম: মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেছেন, ‘আমার অফিস সকাল ৯টায়।  কিন্তু আমি যদি কোনো কারণ ছাড়াই পাঁচ মিনিট বিলম্ব করি বা বিকেল ৫টার আগেই অফিস থেকে চলে যাই, তাহলে এটা আমি ১৬ কোটি মানুষের সঙ্গেই প্রতারণা করার সমান। 

তাই আমি মনে করি এখন ‘গুড গভর্নেন্স’ বাস্তবায়ন জরুরি।  এর জন্য প্রয়োজন ন্যাশনাল ইউটিলিটি স্ট্র্যাটিজি (এনআইএস) বা জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল বাস্তবায়ন।  দায়িত্বে অবহেলা করলে ক্ষমার কোনো সুযোগ নেই।  এটিই আমাদের লক্ষ্য রাখতে হবে। 

মানুষের চারিত্রিক ও নৈতিক বিষয় উন্নত করতে হবে। ’  

আজ বৃহস্পতিবার সকালে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে বিভাগীয় ও জেলা প্রশাসন চট্টগ্রামের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। 

বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব কামরুন নাহার।  বিভাগীয় কমিশনার এবিএম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) শংকর রঞ্জন সাহা, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) নুরুল আলম নিজামী, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমানসহ বিভাগীয়, জেলা প্রশাসন ও সরকারি বিভিন্ন সংস্থার প্রধানরা।  

মন্ত্রীপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ‘সারা পৃথিবীতে যখন করাপশন কাটডাউন করা যাচ্ছে না, জেল-জরিমানা দিয়ে করাপশন কাটডাউন করা যাচ্ছে না।  ইউএনও ও ডিসি এটার উদাহরণ হিসেবে জাপানের কথা নিয়ে আসলো।  তারা প্রেসক্রিপশন হিসেবে বললেন জেল-জরিমানা থাকবে।  তার পাশাপাশি মানুষের মোরালিটি, আচার-ব্যবহার, রিলিজিয়াস বিধি-বিধান সামনে নিয়ে আসতে হবে। ’

তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব কামরুন নাহার বলেন,‘ জনগণের সম্পৃক্ততা ছাড়া কোনো কাজ সফল হয় না।  আর জনগণকে সম্পৃক্ত করার মাধ্যম হলো মিডিয়া।  মিডিয়ার মাধ্যমে জনগণ সরকারের কর্মকাণ্ড সম্পর্কে জানতে পারে।  তাই সরকারের উন্নয়ন কাজে মিডিয়াকে সম্পৃক্ত করতে হবে। ’

তিনি বলেন, ‘সরকার দেশে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছে।  বিভিন্ন প্রকল্প হাতে নিয়েছে।  এসব জনগণকে জানাতে হবে।  প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা মিডিয়ার মাধ্যমে এসব প্রচার করুন।  সরকারি ওয়েবসাইটে তথ্য দিন, যাতে মিডিয়া সেখান থেকে তাদের প্রয়োজনীয় তথ্য নিতে পারে। ’


keya