২:৩৭ পিএম, ২৮ মার্চ ২০২০, শনিবার | | ৩ শা'বান ১৪৪১




বায়েজীদে র‌্যাব-৭ এর অভিযান বিপুল পরিমাণ ভোজ্য তৈল, উৎপাদন সামগ্রী জব্দ

১০ মার্চ ২০২০, ০৯:৪৮ এএম | নকিব


নকিব ছিদ্দিকী, চট্টগ্রাম : চট্টগ্রাম মহানগরীর বায়েজীদ থানাধীন বিসিক শিল্প এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে  বিএসটিআই কর্তৃক প্রদানকৃত লাইসেন্সের শর্তাবলী অনুসরণ না করে ভুয়া স্টিকার ব্যবহার এবং অস্বাস্থ্যকর উপায়ে তেল প্যাকিং করার অপরাধে ‘‘জে.এস মার্কেটিং বাংলাদেশ’’ নামক কারখানাকে ০২ লক্ষ টাকা জরিমান এবং বিপুল পরিমাণ ভোজ্য তৈল এবং উৎপাদন সামগ্রী জব্দ করেছে র‌্যাব-৭ এর ভ্রাম্যমান আদালত। 


 র‌্যাব-৭  এর গোয়েন্দা তথ্য’র ভিত্তিতে জানতে পারে  , চট্টগ্রাম মহানগরীর বায়েজীদ থানাধীন বিসিক শিল্প এলাকায় ‘‘জে.এস মার্কেটিং বাংলাদেশ’’ নামক তৈলের কারখানায় জনসাধারণকে ঠকানোর উদ্দেশ্যে বিএসটিআই কর্তৃক প্রদানকৃত লাইসেন্সের শর্তাবলী অনুসরণ না করে ভুয়া তৈল প্রক্রিয়াজাতকরণ, ভুয়া স্টিকার ব্যবহার এবং অপ্রযোজনীয় উপায়ে তেল প্যাকিং এবং মিথ্যা বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের মাধ্যমে বাজারজাত করছে। 

উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে মোঃ ফয়েজ উল্লাহ, উপ-পরিচালক, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যলয়, বন্দরটিলা চট্টগ্রাম এর সহায়তায়)  র‌্যাব-৭ এর একটি আভিযানিক দল চট্টগ্রাম মহানগরীর বায়েজীদ থানাধীন ব্লক-এ, ব্লক-এ/২ বিসিক শিল্প এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ‘‘জে.এস মার্কেটিং বাংলাদেশ’’ এর ম্যানেজার মোঃ শহীদুল জামান (৩০), পিতা- মৃত রফিকুল আলম, বায়েজীদ বোস্তামী, চট্টগ্রাম’কে বিএসটিআই কর্তৃক প্রদানকৃত লাইসেন্সের শর্তাবলী অনুসরণ না করে ভুয়া তৈল প্রক্রিয়াজাতকরণ, ভুয়া স্টিকার ব্যবহার এবং অপ্রযোজনীয় উপায়ে তেল প্যাকিং এবং মিথ্যা বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের মাধ্যমে বাজারজাত করার অপরাধে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৩৭ ধারা মোতাবেক পণ্য উৎপাদনের পূর্বে মোরক এর গায়ে ভুয়া পণ্য উৎপাদনের ও মেয়াদত্তীর্ণের তারিখ ব্যবহার করায় ৫০ হাজা টাকা, ৪৩ ধারা মোতাবেক অবৈধ প্রক্রিয়ায় পণ্য উৎপাদন বা প্রক্রিয়াকরণে ০১ লক্ষ টাকা ও ৪৫ ধারা মোতাবেক প্রতিশ্রুত পণ্য বা সেবা যথাযথভাবে বিক্রয় বা সরবারাহ না করায় ৫০ হাজার টাকা সাহ সর্বমোট ০২ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়। 

পরবর্তীতে ঘটনাস্থল তল­াশী করে ৩৫,০০০ লিটার সয়াবিন তৈল, ১৩,৫০০ লিটার সরিষার তৈল, ৩,০০,০০০ পিস নকল স্টিকার, ১০,০০০ পিস খালি বোতল, ০৫ কেজি পলিথিন, ২১,০০০ পিস প্যাকিং কার্টুন, ২৭ টি তৈলের ব্যারেল, ০৮ টি তৈলের ট্যাংকি (প্রতিটি- ১,০০০ লিটার) এবং ০৫ পিস তৈলের মোটর পাম্প জব্দ করা হয়। 

জব্দকৃত মালামাল মোঃ ফয়েজ উল্লাহ, উপ-পরিচালক, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যলয়, বন্দরটিলা চট্টগ্রাম এর উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হয়েছে।