৬:৫৭ এএম, ৩১ মার্চ ২০২০, মঙ্গলবার | | ৬ শা'বান ১৪৪১




ডিসি মোছা. সুলতানা পারভীনের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও অসঙ্গতি পাওয়া গেছে

১৫ মার্চ ২০২০, ০৩:৫১ পিএম | নকিব


এসএনএন২৪.কম: সাংবাদিককে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে জেল-জরিমানার ঘটনায় সমালোচিত কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোছা. সুলতানা পারভীনের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও অসঙ্গতি পাওয়া গেছে জানিয়ে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেছেন, তাকে প্রত্যাহারসহ সর্বোচ্চ শাস্তি হতে পারে। 

রোববার (১৫ মার্চ) সচিবালয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে নিজ দপ্তরে প্রতিমন্ত্রী সাংবাদিকদের এসব কথা জানান প্রতিমন্ত্রী।  এরআগে কুড়িগ্রামের ডিসির বিরুদ্ধে করা তদন্ত প্রতিবেদন হাতে পান প্রতিমন্ত্রী। 

গত ১৩ মার্চ মধ্যরাতে কুড়িগ্রামের সাংবাদিক আরিফুল ইসলামকে বাড়ির দরজা ভেঙে তুলে নিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এক বছরের জেল দেওয়ার ঘটনায় ডিসি সুলতানা পারভীন বেশ সমালোচিত হচ্ছেন। 

এই ঘটনা জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের নজরে এলে শনিবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ রংপুর বিভাগীয় কমিশনারকে তদন্তের নির্দেশ দেয়।  রংপুর বিভাগীয় কমিশনার অফিসের কর্মকর্তারা তদন্ত করে প্রতিবেদনের খসড়া মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে পাঠায়। 

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ বলেন, আমরা খসড়া একটা প্রতিবেদন পেয়েছি।  মূল প্রতিবেদন কিছুক্ষণের মধ্যে পৌঁছাবে। 

‘আমরা তদন্ত করেছি, তদেন্তের মধ্যে আমরা বেশ অনেকগুলো অনিয়ম দেখেছি।  সেই অনিয়ম অনুযায়ী ইতোমধ্যে আমরা সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি- তার বিরুদ্ধে আমাদের ডিপার্টমেন্টাল প্রসিডিউর সে প্রসিডিউর অনুযায়ী আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। ’

ফরহাদ হোসেন বলেন, তাৎক্ষণিকভাবে আমরা কিছু সিদ্ধান্ত নিয়েছে।  তার এভাবে অহেতুক যে সমস্যাগুলো সৃষ্টি হয়েছে এবং আমাদের জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের যে নিয়ম-কানুন আছে সে নিয়ম-কানুন অনুযায়ী যে কাজগুলো হয়নি এবং যেটি নিয়ে বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন উঠেছে সেগুলোর অনেকগুলোর সত্যতা পেয়েছি।  বিধায় তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছি, সেটি প্রক্রিয়াধীন।  পুরো রিপোর্টটি পাওয়ার পর তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারবো।