৪:৩৯ পিএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, রোববার | | ২ সফর ১৪৪২




নফছকে নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে সৃষ্টিকর্তার সন্তুষ্টি অর্জন সম্ভব:ইরফানুল হক মাইজভান্ডারী

২০ জুলাই ২০২০, ১০:২১ এএম | নকিব


নকিব ছিদ্দিকী, চট্টগ্রাম : হযরত গাউছুল আজম সৈয়দ আহমদ উল্লাহ মাইজভান্ডারী (কঃ) ওফাতের পূর্বে তার প্রিয় নাতি হযরত সৈয়দ দেলাওর হোসাইন মাইজভান্ডারী (রহঃ) কে মাইজভান্ডারী (কঃ) তার দরবারের আধ্যাত্মিক উত্তরাধিকার নির্ধারনের সময় যে কালাম করেন তা প্রনিধানযোগ্য। 

তিনি বলেন, “আমার ‘দেলাময়না’বালেগ! দেলাময়নাই আমার গদিতে বসবে”।  স্বর্তব্য যে, হযরত কেবলা তার নাতি হযরত সৈয়দ দেলাওর হোসাইন মাইজভান্ডারী (রহঃ) কে আদর করে ‘দেলা ময়না’‘দাদা ময়না’বলতেন। হযরত সৈয়দ দেলাওর হোসাইন মাইজভান্ডারী (রহঃ) তার উপর অর্পিত এই গাউছিয়ত ক্ষমতায় সাজ্জাদানশীন সাব্যস্ত হয়ে মাইজভান্ডারী পরিমন্ডলে আবির্ভূত হয়েছিলেন ব্যতিক্রমধর্মী মানবদরদী এক নতুন স্বত্তা নিয়ে। 

সব্যসাচীর মতো যুগপৎভাবে রূহানি হেদায়ত আর মানবতার কল্যানে নিয়জিত অছি-এ-গাউছুল আজম স্থাপন করেছিলেন আর্ত-মানবতার সেবার এক অনন্য দৃষ্টান্ত। মাইজভান্ডার দরবার শরীফে বর্তমান সাজ্জাদানশীলঃখেলাফত প্রদানপূর্বক সাজ্জাদানশীল মণোয়নের মাধ্যমে গাউছিয়ত জারি রাখার নিয়মের অনুসরনে হযরত শাহ সুফী সৈয়দ দেলাওর হোসাইন মাইজভান্ডারী (রহঃ) তার জীবিতাবস্থায় তদীয় তৃতীয় পুত্র হযরত শাহ সুফী সৈয়দ এমদাদুল হককে (মঃ) নিজ গদীর উত্তরাধিকারী ও দরবারে গাউছুল আজমের সাজ্জাদানশীল সাব্যস্ত করে যান। 

তিনি শাহ সুফী সৈয়দ এমদাদুল হক (মঃ) কে সাজ্জাদানশীনের দায়িত্ব অর্পনের বিষয়টি ১৯৭৪ সনে জরুরি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ ও তার লিখিত ‘মানব সভ্যতা’নামক বইয়ের ভুমিকাংশে উল্লেখের মাধ্যমে প্রামান্যকরন করেন। 

মাইজভান্ডার দরবার শরীফের নায়েব সাজ্জাদানশীন সৈয়দ ইরফানুল হক মাইজভান্ডারী (ম.) বলেছেন, ‘আমাদের সৃষ্টিকর্তার সন্তুষ্টি অর্জন করতে হবে। 

শরীয়ত ও তরিকতের বিধি-বিধান মেনে নিজের নফছকে নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে সৃষ্টিকর্তার সন্তুষ্টি অর্জন সম্ভব।  মাইজভান্ডারী তরিকার শিক্ষা জীবনে ধারণ করতে হবে।  সপ্তকর্ম পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে। ’

রোববার (১৮ জুলাই) রাতে ২৭ জিলক্বদ গাউছুল আজম মাইজভান্ডারী হযরত মওলানা শাহ ছুফী সৈয়দ আহমদ উল্লাহ (ক.) এর ক্বমরী ওরশ শরীফ উপলক্ষে অনলাইন জুমে অনুষ্ঠিত মাহফিলে বক্তব্যকালে এসব কথা বলেন তিনি। 

করোনা সংকটের কারনে গাউছুল আজম মাইজভান্ডারী হযরত মওলানা শাহ ছুফী সৈয়দ আহমদ উল্লাহ (ক.) এর ক্বমরী ওরশ শরীফ উপলক্ষে মাহফিল অনলাইন জুমে অনুষ্ঠিত হয়। 

মাহফিলে শরীয়ত ও তরিকতের আলোকে নানা বিষয় নিয়ে বক্তব্য দেন আল্লামা কাযী মুহাম্মদ মুঈনুদ্দীন আশরাফী, মওলানা মুহাম্মদ আবুল মনসুর, শায়খ মুহাম্মদ মুহি উদ্দিন আযহারী।  মাহফিলে মিলাদ, তাওয়াল্লোদে গাউছিয়া ও জিকির পরিচালনা করেন মওলানা জয়নাল আবেদীন ছিদ্দিকী। 

মাহফিলে আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন আওলাদে রাসূল, মাইজভান্ডার দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন হযরত মওলানা শাহ ছুফী সৈয়দ এমদাদুল হক মাইজভান্ডারী (ম.)।  তিনি মোনাজাতে দেশ, জাতি ও বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনা করেন। 

গাউছুল আজম মাইজভান্ডারী হযরত মওলানা শাহ ছুফী সৈয়দ আহমদ উল্লাহ (ক.) এর ক্বমরী ওরশ শরীফ উপলক্ষে অনলাইন জুমে অনুষ্ঠিত মাহফিলে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ও বিভিন্ন দেশ থেকে আশেক ভক্তরা অংশগ্রহণ করেন।