৩:০৩ এএম, ৪ আগস্ট ২০২০, মঙ্গলবার | | ১৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১




খাগড়াছড়ির গুইমারাতে ধর্ষকের বিচারের দাবীতে অসহায় পিতার সংবাদ সম্মেলন

২৭ জুলাই ২০২০, ১০:৫৭ এএম | নকিব


এম. সাইফুর রহমান,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি : খাগড়াছড়ির গুইমারাতে ১৩ বছরের নাবালিকা এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ এনে ধর্ষকের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করেছে প্রবাস ফেরত অসহায় পিতা ইঞ্জিনিয়ার মোঃ জাহাঙ্গীর আলম। 

সকালে গুইমারা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে অশ্রুসিক্ত নয়নে তিনি তুলে ধরেন ভিডিও ধারণের মাধ্যমে বøাক মেইল করে তার কন্যার উপর নিয়মিত বর্বর শারিরীক নির্যাতনের কথা। 

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি অভিযোগ করেন, তার বিদেশ থাকার সুযোগে হিন্দু ধর্মাবলম্বী শ্যাম প্রসাদ বণিক নামের স্থানীয় এক জুয়েলারী দোকান মালিক নানা প্রলোভন দেখিয়ে তার স্ত্রীর সাথে পরকীয়া ও অনৈতিক সম্পর্কে লিপ্ত হয়। 
স্থানীয় উচাইরী মারমা নামের এক যুবক জাহাঙ্গীরের স্ত্রী সাহেদা বেগমের অনৈতিক কর্মকান্ড দেখে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের নিকট বিচার প্রার্থী হওয়ায়, গত বছরের ১৩ অক্টোবর চোলাই মদের সাথে বিষপান করিয়ে উচাইরী মারমাকে হত্যা করেছে শ্যাম প্রসাদ বণিক এমন অভিযোগও করেছেন সংবাদ সম্মেলনে। 

প্রবাসে থাকা কালীন জাহাঙ্গীর আলম বিভিন্ন মাধ্যমে এসব অনৈতিক কর্মকান্ডের খবর পেয়ে দেশে ফিরে তার স্ত্রী শাহেদা আক্তারকে বিষয়টি জিজ্ঞাসা করে।  উত্তরে সে স্বামীকে নানান ভাবে মানসিক নির্যাতন করে এবং কৌশলে শ্যাম প্রসাদ বণিকসহ মিলে তাকে বিষ খাইয়ে ও ছুরিকাঘাত করে হত্যারও চেষ্টা করে।  পরে অপারগ হয়ে গত ৬ জানুয়ারী ২০২০ শরিয়ত মোতাবেক স্ত্রীকে তালাক দেন জাহাঙ্গীর।  এরপর থেকে স্ত্রী শাহেদা ও শ্যাম প্রসাদ একহয়ে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা স্ত্রী নির্যাতন ও যৌতুকের মামলা দিয়ে হয়রানী করে আসছে।  সে সাথে তার মেয়েদের শ্যাম প্রসাদের করা ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে মিথ্যা স্বাক্ষী দেয়া থেকে শুরু করে বাবার সাথে দেখাও করতে দিচ্ছে না বলে লিখিত অভিযোগ করেন অসহায় পিতা । 

সম্প্রতি কে বা কারা জাহাঙ্গীর আলমে নিজ দোকানে একটি ম্যামোরি রেখে গেলে তাতে তার স্ত্রী ও মেয়েকে ধর্ষণের নির্মম ভিডিত্ত ও স্থীর চিত্র দেখতে পান তিনি।  এ ঘটনায় নাবালিকা মেয়ের ধর্ষনকারীর দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী জানান তিনি। 

উল্লেখ্য, শ্যাম প্রসাদ বণিক এলাকায় প্রভাবশালী হওয়ায় ইতিপূর্বে ধর্ষিতার মার সাথে পরকীয়া লিপ্ত থাকার ঘটনাও তৎকালীন প্রশাসন এবং স্থানীয়দের কাছে বিচার চেয়ে বিচার না পেয়ে এখন বাধ্য হয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন অসহায় এ প্রবাস ফেরৎ পিতা।  এছাড়া ও শ্যাম প্রসাদ বণিক একজন ইয়াবা ব্যবসায়ী বলেও তিনি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে অভিযোগ করা হয়।