৫:২৩ পিএম, ৩০ নভেম্বর ২০২০, সোমবার | | ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২




ময়মনসিংহের ৫ ইউনিয়নের ৪টিতে আ.লীগ প্রার্থীর জয়

২১ অক্টোবর ২০২০, ০৬:৪৯ পিএম |


মিজানুর রহমান,ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহের  পাঁচ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদের চারটিতে নৌকার প্রার্থী এবং একটিতে স্বতন্ত্র নারী প্রার্থী জয়ী হয়েছেন। 

মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ হয়। 

ময়মননসিংহ সদরের বোরর চর ইউনিয়নের নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. আব্দুল আজিজ সরকার সাত হাজার ৬৫০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।  তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী একেএম আনোয়ার হোসেন পেয়েছেন চার হাজার ১২৫ ভোট।  ময়মনসিংহ সদরের নির্বাচন কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বিজয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

ফুলবাড়িয়া উপজেলার ৪ নম্বর বালিয়ান ইউনিয়নের উপনির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নারী স্বতন্ত্র প্রার্থী শামিমা খাতুনকে (আনারস) বেসরকারিভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে।  মোট আট হাজার ৫০ ভোট পেয়ে তিনি নির্বাচিত হয়েছেন।  তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মো. মিজানুর রহমান পলাশ (ধানের শীষ) পেয়েছেন চার হাজার ৩৯২ ভোট। 

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল স্বতন্ত্র প্রার্থী শামিমা খাতুনকে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করেন। 

নান্দাইল উপজেলার শেরপুর ইউপির উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মোয়াজ্জেম হোসেন ভূইয়া মিল্টন বেসরকারিভাবে জয়লাভ করেছেন। 

এই নির্বাচনে চার জন প্রার্থী অংশগ্রহণ করেন, ভোট গণনা শেষে রিটার্নিং কর্মকর্তা কর্তৃক প্রকাশিত ফলাফলে দেখা যায় আওয়ামী লীগ প্রার্থী নৌকা প্রতীকে আট হাজার ৫৯৩ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে জয়ী হয়েছেন।  তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী বজলুর রহমান আনারস প্রতীকে পেয়েছেন তিন হাজার ১৩৩ ভোট। 

বিষয়টি নিশ্চিত করে নান্দাইল উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ফখরুজ্জামান বলেন, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

ফুলপুর উপজেলার ছনধরা ইউনিয়নের উপনির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীক নিয়ে চার হাজার ৩৬৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন মো. আবুল কালাম আজাদ ও তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আব্দুস সালাম আনারস প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন তিন হাজার ৬২৫ ভোট।  এ ইউনিয়নের উপনির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন সাত জন প্রার্থী। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ফুলপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শীতেষ চন্দ্র সরকার।  তিনি বলেন, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার ৪ নম্বর আঠারবাড়ী ইউনিয়নের উপনির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে জুবের আলম (রুপক) চার হাজার ৮৪৫ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।  তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জসীম উদ্দিন পেয়েছেন চার হাজার ৬৯৩ ভোট।  বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাকির হোসেন।