১০:৪৫ পিএম, ১৭ আগস্ট ২০২২, বুধবার | | ১৯ মুহররম ১৪৪৪




প্রাণ ফিরেছে শিক্ষাঙ্গনে, মানছে না সামাজিক দূরত্বসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি

০৩ মার্চ ২০২২, ০১:১৬ পিএম |


নকিব ছিদ্দিকী:

করোনার ঢেউয়ের দুঃসময় পেরিয়ে আসা বাংলাদেশ এখন স্বাভাবিকতায় ফিরছে কিছুটা।  কমছে মৃত্যু ও সংক্রমণের হারও। দীর্ঘ সময় বন্ধ থাকা শিক্ষাঙ্গনেও ফিরে এসেছে প্রাণচাঞ্চল্য।  এদিকে সবকিছু স্বাভাবিকতায় ফেরার সঙ্গে সঙ্গে দেশ থেকে উধাও হয়েছে স্বাস্থ্যবিধি! অধিকাংশ মানুষ এখন মাস্ক ব্যবহার করছে না।  সামাজিক দূরত্বসহ মানছে না অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি।  কাঁচাবাজার, গণপরিবহন, শিক্ষাঙ্গনসহ সর্বত্রই মানুষের ঢল।  সারা দেশেই চলছে সভা-সমাবেশ, গণজমায়েত।   বিয়েসহ সামাজিক সব অনুষ্ঠানই এখন উন্মুক্ত।  কর্মক্ষেত্রে কমসংখ্যক মানুষই মানছে স্বাস্থ্যবিধি।  এ ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানেও ঢিলেঢালা ভাব।   জনস্বাস্থ্যবিদরা বলছেন, এভাবে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত হলে দেশে আবারও বিপদ নেমে আসতে পারে।  বুধবার (২ মার্চ) সকাল থেকে বিদ্যালয়ে আসতে শুরু করে শিক্ষার্থীরা।  দ্বিতীয় দফায় প্রায় ছয় সপ্তাহ বন্ধ থাকার পর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ক্লাস শুরু হলো।  প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত সপ্তাহে ছয়দিনই ক্লাস হবে।  তবে ক্লাস দুই শিফটে নেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।  প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা পাঠানো হয়।   জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম জানান, করোনার সংক্রমণ কমে যাওয়ায় এখন প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের প্রতিদিন ক্লাস হবে।  শিক্ষার্থীরা যেন স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্লাস করতে পারে, সেজন্য দুইটি শিফটে ক্লাস চলবে।  করোনার সংক্রমণের কারণে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করে সরকার।  ১৮ মাস পর গত বছরের সেপ্টেম্বরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হয়।  কিন্তু নতুন করে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় গত ২১ জানুয়ারি আবারও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি ঘোষণা করা হয় ২১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।  পরে তা বাড়ানো হয় ১ মার্চ পর্যন্ত।   


keya