১:৫৬ পিএম, ১৯ আগস্ট ২০২২, শুক্রবার | | ২১ মুহররম ১৪৪৪




দেখুন পদ্মা সেতু হয়েছে কিনা: খালেদাকে শেখ হাসিনা

২৫ জুন ২০২২, ০২:৫০ পিএম |


সময় ডেস্ক : বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘খালেদা জিয়া বলেছিলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে পদ্মা সেতু হবে না।  তাকে বলবো, আসুন, দেখুন পদ্মা সেতু নির্মাণ হয়েছে কিনা। 

শনিবার (২৫ জুন) দুপুর ১টার পর মাদারীপুরের শিবচরে জনসভায় তিনি এ কথা বলেন। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ২০০১ সালে আমরা পদ্মা সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিলাম।  খালেদা জিয়া এসে তা বন্ধ করে দেন।  আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় এসে পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরু করে।  তখন তারা বলেছিলেন, আওয়ামী লীগ কোনো দিন নাকি পদ্মা সেতুর কাজ করতে পারবে না। 

জনসভায় উপস্থিত জনগণের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, নিজেদের অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ, আপনারা আমার পাশে দাঁড়িয়েছেন বলেই সম্ভব হয়েছে।  সারা দেশের মানুষ পাশে দাঁড়িয়েছে।  পদ্মা সেতু প্রমাণ করে জনগণই শক্তি, বড় শক্তি। 

তিনি বলেন, আজ আমাদের দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের জন্য বিশেষ একটি দিন।  আজ পদ্মা সেতু উদ্বোধন করে আসলাম। 

শেখ হাসিনা বলেন, পদ্মা সেতু করতে গিয়ে যারা জমি দিয়েছিলেন, তাদের ঘর করে দিয়েছি, জমি দিয়েছি।  তাদের জীবন-জীবিকার ব্যবস্থা করে দিয়েছি। 

তিনি বলেন, পদ্মা সেতু উদ্বোধন অনুষ্ঠানে আপনারা উপস্থিত হয়েছেন, আপনাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।  একটা কথা মনে রাখবেন, এই বাংলাদেশের মানুষের জন্য আমার বাবা জীবন দিয়েছেন, জীবন দিয়েছেন আমার মা, আমার ভাইয়েরা। 

‘এই পদ্মা সেতু করতে গিয়ে আমাকে অনেকে অপমান করেছেন।  আমাদের একটাই লক্ষ্য ছিল, পদ্মা সেতু নির্মাণ করবই।  সেই সাহস দিয়েছেন আপনারা, শক্তি দিয়েছেন আপনারা।  আমি আপনাদের পাশে আছি।   এখন তো পদ্মা সেতু হয়ে গেল।  আমরা আসব, আপনারাও যাবেন।  ’

এর আগে, শনিবার দুপুর ১২টা ৩৬ মিনিটে পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্তে টোল প্লাজা সংলগ্ন উদ্বোধনী ফলক ও ম্যুরাল-২ উন্মোচন করেন প্রধানমন্ত্রী। 

বেলা ১১টা ৫৮ মিনিটে মাওয়া প্রান্তে পদ্মা সেতুর ফলক উন্মোচন করেন প্রধানমন্ত্রী। 

দুপুর ১২টা ০৬ মিনিটে সেতু দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর গাড়িবহর জাজিরার অভিমুখে রওয়ানা হয়।  এর আগে বেলা ১১টা ৪৮ মিনিটে নিজহাতে নির্ধারিত টোল দেন প্রধানমন্ত্রী। 

সকাল ১০টায় হেলিকপ্টারযোগে মুন্সীগঞ্জের দোগাছি পদ্মা সেতু সার্ভিস এরিয়া-১ এ পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী।  সেখান থেকে পদ্মা সেতুর উত্তর থানা সংলগ্ন মাঠে আয়োজিত সুধী সমাবেশে উপস্থিত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন।  সমাবেশে অংশ নেন সাড়ে তিন হাজার সুধীজন।  যাদের মধ্যে ছিলেন বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, বিশিষ্ট নাগরিক ও সাংবাদিকরা। 

সমাবেশ শেষে প্রধানমন্ত্রী মাওয়া প্রান্তে পদ্মা সেতুর ফলক উন্মোচন করেন।  পরে মোনাজাতে অংশ নেন তিনি। 


keya