১১:১৮ পিএম, ১৭ আগস্ট ২০২২, বুধবার | | ১৯ মুহররম ১৪৪৪




ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিলেন বংবং

৩০ জুন ২০২২, ০৩:০৩ পিএম |


এসএনএন২৪.কমঃ ফিলিপাইনের নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন সাবেক স্বৈরশাসক ফের্দিনান্দ এমানুয়েল মার্কোসের ছেলে বংবং মার্কোস।  জন বিদ্রোহে পদচ্যুত ও নির্বাসিত হওয়ার ৩৬ বছর পর ফিলিপিনের শাসনভার গ্রহণ করলেন তিনি। 

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) ৬৪ বছর বয়সী বংবং মার্কোস শপথ পাঠ করেন।  তার রাজ্যাভিষেক এশিয়ার অন্যতম বিখ্যাত রাজনৈতিক রাজবংশের জন্য একটি বিরাট প্রত্যাবর্তন হিসেবে দেখা হচ্ছে। 

বংবং হিসেবে দেশব্যাপী পরিচিত হলেও তার আসল নাম ফের্দিনান্দ মার্কোস জুনিয়র।  তার মায়ের নাম ইমেলদা মার্কোস।  তিনি দেশটির সাবেক ফার্স্ট লেডি।  এবং নিজের সংগ্রহে তিন হাজার জোড়া জুতার রাখায় তিনি দুনিয়াব্যাপী সমালোচিত ছিলেন।  বংবংয়ের বাবা ফিলিপিন্সের সাবেক প্রেসিডেন্ট।  একজন স্বৈরশাসক হিসেবে তার নাম দুনিয়াব্যাপী সমাদৃত। 

চলতি বছর মে মাসে ফিলিপাইনে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।  নির্বাচনে বিরল ভূমিধ্বস বিজয় অর্জন করেন বংবং।  হারিয়ে দেন নিজ দেশে সময়ের আলোচিত প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতের্তেকে।  নির্বাচনে জয় পেতে বংবং তার পরিবারের ভাবমূর্তিকে পরিবর্তন করেছিলেন বলে মন্তব্যে করেছিলেন সমালোচকরা। 

নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেওয়ার পর জনগণের উদ্দেশে বংবং বলেন, দেশের সব নাগরিক যাতে উপকৃত হন, তেমন পদক্ষেপ নেওয়া হবে।  এবং এটিই আমার পক্ষ থেকে ফিলিপাইনের গণতন্ত্রের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় নির্বাচনী ম্যান্ডেট।  এসময় ভোটারদের অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জানান তিনি। 

বংবং আরও বলেন, আপনারা হতাশ হবেন না, ভয় পাবেন না।  এ সময় নিজের স্বৈরশাসক বাবার কথাও উল্লেখ করে প্রশংসাও করেন তিনি।  আরও বলেন, আমার প্রেসিডেন্সি অতীত নিয়ে নয়।  বরং ভবিষ্যৎ নিয়ে। 

উল্লেখ্য, ৯ মে (সোমবার) ফিলিপাইনে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।  এদিন সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ হয় দেশটিতে।  ৬ কোটি ৭০ লাখ ভোটার নিজেদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে রদ্রিগো দুতের্তেকে সরিয়ে ফের্দিনান্দ বংবং মার্কোস জুনিয়রকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে বেছে নেন। 


keya