৮:৫৯ পিএম, ২৭ মে ২০২৪, সোমবার | | ১৯ জ্বিলকদ ১৪৪৫




বরমায় বন্য হাতি লোকালয়ে হামলা : নিহত -১

১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:৪১ পিএম |


চন্দনাইশ প্রতিনিধি: চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলায় বরমা বাইনজুড়ী এলাকায় বন্য হাতির দল সাঙ্গু নদী পার হয়ে লোকালয়ে হামলা চালিয়েছে।  এই হামলায় ১ জন নিহত ও অপর জন আহত হয়েছে।  আহত ব্যক্তিকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য ভর্তি করানো হয়।  সোমবার (১৫ এপ্রিল) সকালে উপজেলার বরমা কলেজের পাশে অবস্থিত বরমা ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড মধ্যম বাইনজুরী ও ৫ নম্বর ওয়ার্ড শেবন্দী এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।  নিহত ব্যক্তি বাইনজুরী গ্রামের ঈসা খাঁন ডাক্তার বাড়ির মৃত আবদুর রাজ্জাকের ছেলে জাকির হোসেন (৬৫)।  আহত ব্যক্তি হল শেবন্দী গ্রামের নুরুল ইসলাম চেয়ারম্যান বাড়ির মোহাম্মদ নজরুল ইসলামের ছেলে মো. সালাউদ্দিন (৪০)।  প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, নিহত জাকির হোসেন ফসল তুলতে যাওয়ার সময় বরমা কলেজ গেইটের পূর্ব পাশ থেকে দুটি হাতি এসে হামলা চালায়।  প্রথমে হাতির শুড়ে তুলে তাকে আছাড় দেয়ার পর পিছনে ফিরে পায়ের চাপ দিলে ঘটনাস্থলে জাকিরের মৃত্যু হয়।  এর পর হাতির দল খাদ্যের সন্ধানে ছোটাছুটি করতে গিয়ে লোকালয়ের রাস্তা দিয়ে চলে যাওয়ার সময় শেবন্দী এলাকার সালাউদ্দিন নামে এক যুবককের উপর আক্রমণ চালিয়ে গুরতর আহত করে।  তাঁকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।  ঘটনার খবর পেয়ে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে স্থানীয়দের সামনে নিহত ব্যক্তির পরিবারকে ২০ হাজার টাকা ও আহত ব্যক্তির পরিবারকে ১০ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন।  এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহমুদা বেগম, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ আবদুল্লাহ আল এরফান, বরমা ইউপি চেয়াম্যান খোরশেদ আলম টিটু, উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা রিয়াদ হোসেন, পটিয়া রেঞ্জ কর্মকর্তা নুরে আলম হাফিজ, ইউপি সদস্য নওশা মিয়া, স্থানীয় সাংবাদিকসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।  বর্তমানে চট্টগ্রামের ৪ উপজেলা চন্দনাইশ, সাতকানিয়া, আনোয়ারা ও বাঁশখালী অঞ্চলের মানুষের আতঙ্কের আরেক নাম হয়ে উঠেছে বন্য হাতি।  হাতির উপদ্রব বেড়ে যাওয়ায় পতিত জমির সংখ্যা বেড়ে যাওয়ার আশাঙ্কা প্রকাশ করছে এলাকাবাসী।  নির্বাহী কর্মকর্তা মাহমুদা বেগম বলেন, ইউপি চেয়ারম্যানের ফোন পেয়ে পটিয়া রেঞ্জ কর্মকর্তা, স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ও প্রকল্প কর্মকর্তাসহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিবারগুলোকে সববেদনা জানানো হয়।  টিএইচও-কে ঘটনাস্থলেই ডেথ সার্টিফিকেট প্রদানের ও চন্দনাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে জিডি গ্রহণের নির্দেশ দেন।  ডেথ সার্টিফিকেট ও জিডির কপি দিয়ে নীতিমাল অনুযায়ী আবেদন প্রস্তুত করে পটিয়া রেঞ্জ কর্মকর্তাকে নিহতের পরিবারকে ৩ লক্ষ টাকা এবং আহতের পরিবারকে ১ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দ্রুত প্রদান করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশনা দেয়া হয় বলে জানান তিনি। 


keya